বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত প্রতিবেদন বস্তুনিষ্ঠ, ভারসাম্যপূর্ণ ও যথাযথ প্রমাণভিত্তিক হওয়া বাঞ্ছনীয়৷ কিন্তু আল-জাজিরার তথ্যচিত্রে কিছু ব্যক্তির বক্তব্য প্রমাণ ছাড়াই মিউজিক ও স্পেশাল এফেক্ট ব্যবহার করে উপস্থাপন করা হয়েছে, যা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত৷’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘আল-জাজিরার প্রতিবেদনে তথ্যের উৎস হিসেবে যাঁদের বক্তব্য প্রচার করা হয়েছে, তাঁরা দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাদেশ রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত৷ বাংলাদেশবিষয়ক সংবাদ প্রচারের ক্ষেত্রে বস্তুনিষ্ঠতার তোয়াক্কা না করা আল-জাজিরার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে৷ অনেক দিন ধরেই আল-জাজিরা বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী শক্তির ক্রীড়নক হিসেবে কাজ করছে৷ এ প্রসঙ্গে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিপক্ষে আল-জাজিরার ভূমিকা এবং ২০১৩ সালের ৫ মে হেফাজতের সমাবেশে হতাহতের সংখ্যা নিয়ে বানোয়াট সংবাদ পরিবেশনের বিষয়টি স্মরণযোগ্য৷ আল-জাজিরার সাম্প্রতিক অপপ্রচার দেশের অব্যাহত উন্নয়ন কর্মকাণ্ডকে বাধাগ্রস্ত করা এবং দেশকে অস্থিতিশীল করার অপপ্রয়াস বলেই আমরা মনে করি৷’

আল-জাজিরাকে তার ‘একপেশে রাজনৈতিক ভূমিকা’ পরিহার করে বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা করার আহ্বান জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি৷ একই সঙ্গে দেশি-বিদেশি সব ষড়যন্ত্রকারীর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন সমিতির দুই শীর্ষ নেতা৷

আল-জাজিরায় গত সোমবার বাংলাদেশ নিয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন সম্প্রচারিত হয়, যা ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে৷ ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’ শীর্ষক ওই প্রতিবেদনে উচ্চপর্যায়ের ব্যক্তিদের দুর্নীতিতে জড়িত থাকার বিষয় তুলে ধরা হয়৷ সরকার ও সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এই প্রতিবেদনের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন