ঢাকায় নিযুক্ত কানাডার হাইকমিশনার বেনোয়া পিয়ের লারামে বলেছেন, চলমান সহিংসতা চূড়ান্ত বিচারে বাংলাদেশের ভাবমূর্তিতে প্রভাব ফেলবে। গতকাল রোববার রাজধানীতে কানাডার দুই দিনব্যাপী বাণিজ্য মেলার শেষ দিনে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
এদিকে ঢাকায় নিযুক্ত চীনের নতুন রাষ্ট্রদূত মা মিংকিয়াং আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন, অচিরেই বাংলাদেশের সহিংসতার অবসান হবে। সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পর তিনি এ আশাবাদ প্রকাশ করেন।
একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কানাডার হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশে বর্তমানে যে পরিস্থিতি রয়েছে অবশ্যই তার অবসান হওয়া উচিত। কারণ, এ পরিস্থিতি চূড়ান্ত বিচারে দেশের ভাবমূর্তিতে প্রভাব ফেলবে। তিনি বলেন, ‘সহিংসতার শিকার হওয়া লোকজনের কষ্ট আমাকে ব্যথিত ও হতাশ করে। ক্ষতিগ্রস্তরা অবশ্যই সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা লোকজন। তাই অবশ্যই সহিংসতার অবসান হতে হবে এবং শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক চর্চার ক্ষেত্র অবশ্যই তৈরি করতে হবে।’
বেনোয়া পিয়ের লারামে মনে করেন, রাজনৈতিক এ সহিংসতার অবসান হওয়া উচিত। কেননা তা বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব ফেলছে। তাঁর মতে, নিজেদের বিনিয়োগ সুরক্ষার স্বার্থে ব্যবসায়ীরা শান্তি ও স্থিতিশীলতা দেখতে চান। বাংলাদেশে কানাডার বিনিয়োগ বাড়াতে হলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা পূর্বশর্ত।
এদিকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর চীনের রাষ্ট্রদূত জানান, চলমান সহিংসতা নিয়ে তাঁদের আলোচনা হয়েছে।
বৈঠকের পর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিএনপি-জামায়াত আহূত চলমান অবরোধ এবং সাধারণ জনগণের বিরুদ্ধে তাদের সহিংসতা ও পেট্রলবোমা হামলা সম্পর্কে পররাষ্ট্রমন্ত্রী চীনের রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন