default-image

করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সৌদি আরব এবার বাইরের দেশের হজযাত্রীদের সে দেশে প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এতে বাংলাদেশসহ বাইরের দেশের মুসল্লিরা এবার সৌদি আরবে গিয়ে পবিত্র হজ পালন করতে পারবেন না।

গতকাল সোমবার সৌদি আরবের হজ মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত ঘোষণায় বলা হয়, সৌদি আরবে বর্তমানে যাঁরা বসবাস করছেন, তাঁদের মধ্যে খুবই সীমিতসংখ্যক মুসল্লি এবারের পবিত্র হজে অংশ নিতে পারবেন।

সৌদি আরবের এই সিদ্ধান্তের ফলে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশ থেকে নিবন্ধন করা ৬১ হাজার মুসল্লি হজে যেতে পারছেন না। এখন তাঁদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে, না অন্য কিছু করা হবে, সেটি ঠিক করতে আগামীকাল বুধবার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে সভা ডেকেছে বাংলাদেশের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (হজ) এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী আজ মঙ্গলবার প্রথম আলোকে বলেন, আগামীকাল দুপুরে এই সভা হবে।

মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, হজ নিবন্ধনের জন্য যাঁরা টাকা জমা দিয়েছেন, তাঁদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে, নাকি আগামী বছরের জন্য রাখা হবে, সেটা এই সভায় আলোচনার ভিত্তিতে ঠিক করা হবে। কেউ যদি টাকা তুলে নিতে চান, সে ক্ষেত্রে করণীয়ও কাল ঠিক হবে। সভার সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জানানো হবে। কারণ, ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা শেখ মো. আব্দুল্লাহ মারা যাওয়ার পর এখন প্রধানমন্ত্রীই ধর্ম মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে আছেন। তাঁর অনুমতি নিয়ে পরে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে।

ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, নির্ধারিত কোটা অনুযায়ী সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে এবার বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ৩৭ হাজার মুসল্লির হজে যাওয়ার সুযোগ ছিল। কিন্তু এবার নিবন্ধন করেন ৬১ হাজার মুসল্লি। সৌদির সিদ্ধান্তের পর তাঁদের এবার আর হজে যাওয়ার সুযোগ থাকছে না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0