default-image

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের মানবাধিকার বিষয়ক উপকমিটি আগামী বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করবে। সম্প্রতি বাংলাদেশ ঘুরে যাওয়া উপকমিটির সদস্যরা তাঁদের অভিজ্ঞতা এ সময় কমিটির কাছে তুলে ধরবেন।
পার্লামেন্টের ওয়েবসাইট থেকে জানা গেছে, ব্রাসেলসের স্থানীয় সময় সকাল নয়টায় শুরু হয়ে আলোচনা এক ঘণ্টা চলবে। উপকমিটির ওই এক ঘণ্টার বৈঠকে বাংলাদেশের পরিস্থিতি ছাড়াও অন্য আলোচ্যসূচিটি হচ্ছে ‘মানবাধিকার ও প্রযুক্তি: তৃতীয় দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে নজরদারি ও অনাহুত প্রবেশের প্রভাব’।
উপকমিটির বৈঠকে বাংলাদেশ নিয়ে তিন সদস্যের প্রতিনিধিরা আলোচনার পাশাপাশি একটি খসড়া প্রতিবেদন জমা দেবেন। উপকমিটির সহসভাপতি ক্রিশ্চিয়ান ড্যান প্রেদার নেতৃত্বে তিন সদস্যের প্রতিনিধিদল ১৬ থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সফর করেন।

বাংলাদেশ সফর শেষে দেওয়া এক বিজ্ঞপ্তিতে ক্রিশ্চিয়ান ড্যান প্রেদা বলেন, ‘মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ থাকায় আমরা এ সফরে এসেছি। বাংলাদেশকে আমরা শক্তিশালী অংশীদার হিসেবে চাই। ২০২১ সালের মধ্যে মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে বাংলাদেশের সম্ভাবনাকে পুরোপুরি কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে মানবাধিকার ও গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধা অপরিহার্য উপাদান।’
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সরকার ও বিরোধী দলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধিদল অবিলম্বে ক্রমবর্ধমান সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও বাংলাদেশের নাগরিক সমাজের সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে রাজনৈতিক সংকট সমাধানের আহ্বান জানিয়েছে।
ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরের প্রস্তাব পুনরায় উল্লেখ করে প্রতিনিধিদল গুম ও বিচারবহির্ভূত হত্যা নিয়ে অব্যাহতভাবে উদ্বেগ জানিয়েছে। বিভিন্ন আলোচনায় মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে। এ ক্ষেত্রে মৌলিক ও রাজনৈতিক স্বাধীনতার বিনিময়ে শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠিত হওয়া উচিত নয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন 

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন