কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলায় বাল্যবিবাহ দেওয়ার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পাঁচজনকে জেল-জরিমানা করেছেন। গতকাল রোববার চিলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তবিবুর রহমান নিজ কার্যালয়ে আদালত বসিয়ে তাঁদের জেল ও জরিমানা করেন।
আদালত কনের বাবা ও মামাকে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং কাজি রাগীব হাসান, বরের বাবা রিয়াজুল হক ও গ্রাম্য মাতব্বর মো. জামিউল ইসলামকে এক হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত ৬ আগস্ট চিলমারী উপজেলার মাচাবান্দা নামাচর গ্রামের রিয়াজুল হকের ছেলে সবুজ মিঞার (১৯) সঙ্গে ১৩ বছর বয়সী এক মেয়ের বিয়ে নিবন্ধন করা হয়। বিয়ে নিবন্ধন করেন স্থানীয় কাজি রাগিব আহসান। বিয়ে হলেও ছেলেমেয়ে নিজ নিজ বাড়িতে বাস করতে থাকে। ১২ ফেব্রুয়ারি দুই পরিবার আলোচনার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে মেয়েকে ছেলের বাড়িতে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।
খবর পেয়ে চিলমারীর ইউএনও তবিবুর রহমান গতকাল বেলা ১১টায় পুলিশ পাঠিয়ে কাজি, কনের বাবা ও মামাকে ধরে নিজ কার্যালয়ে নিয়ে আসেন। পরে ইউএনও সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে বিচার করেন।
চিলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল হক বলেন, কনের বাবা ও মামাকে কুড়িগ্রাম জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন