default-image

ঈদের জামায়াত শেষে খুতবা পাঠ করা হয়। এরপর অনুষ্ঠিত হয় দোয়া ও মোনাজাত। মোনাজাতে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করা হয়। পাশাপাশি সারা বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সুস্থতা কামনা এবং যাঁরা মারা গেছেন, তাঁদের জন্য দোয়া করা হয়। মোনাজাতে সারা বিশ্বের মুসলিম উম্মাহসহ সব মানুষের গুনাহ মাফ চেয়ে দোয়া কামনা করা হয়েছে। যেকোনো বিপদ থেকে দেশকে হেফাজতের জন্য আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা করা হয়েছে।

default-image

নামাজ শেষে দীর্ঘ দুই বছর পর পরস্পরের সঙ্গে কোলাকুলি করেন মুসল্লিরা। এবার করোনার বিধিনিষেধ না থাকায় পরস্পরের সঙ্গে কোলাকুলি এবং হাতে হাত মেলাতে পেরে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন মুসল্লিরা। তাঁরা বলেন, ঈদের নামাজের পর প্রধান আনন্দ একে অপরকে আলিঙ্গন করে শুভেচ্ছা বিনিময়ে। এবারের ঈদের নামাজের পর তা করতে পেরে খুশি সবাই।

দুই ছেলেকে নিয়ে বায়তুল মোকাররম মসজিদে নামাজ আদায় করতে এসেছিলেন ওয়ারীর বাসিন্দা নজিবুল হক। তিনি বলেন, ‘গত দুই বছর করোনার কারণে আমাদের চলাচল সীমাবদ্ধ ছিল। এবার খোদার দরবারে তাঁর সন্তুষ্টি কামনায় আমরা সবাই একত্র হয়েছি।’

default-image

সকালে জাতীয় মসজিদে প্রধান ঈদের জামাতে নামাজ আদায় করার জন্য বিভিন্ন স্থান থেকে মুসল্লিরা আসেন। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায়, তৃতীয় জামাত ৯টায় ও চতুর্থ জামাত ১০টায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা বেলা পৌনে ১১টায়।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন