default-image

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বিএনপির গৃহীত কর্মসূচি নিয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত) মনিরুল ইসলামের করা মন্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘তিনি (ভারপ্রাপ্ত কমিশনার) বলেছেন, বিএনপির কর্মসূচি এন্টিন্যাশনাল প্রোগ্রাম। এটা কেন বলেছেন, কীভাবে বলেছেন, সেটার একটা ব্যাখ্যা আমরা জানতে চাই।’

রাজধানীর গুলশানে আজ সোমবার দুপুরে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ ব্যাখ্যা দাবি করেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘উনি কী বোঝাচ্ছেন, এটা আমাদের ব্যাখ্যা করে বলতে হবে। আমরা বুঝতে পারছি না, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপন করা বা পালন করা কি এন্টিন্যাশনাল প্রোগ্রাম?’

গতকাল রোববার ঢাকা মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে ভারপ্রাপ্ত কমিশনার ১৭ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত ১০ দিন ঢাকায় রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের বিষয়ে বিভিন্ন নির্দেশনা দেন।

বিজ্ঞাপন

এই নির্দেশনার উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘ডিএমপির যিনি ভারপ্রাপ্ত কমিশনারের দায়িত্বে আছেন, তাঁর নির্দেশনা আমাদের বিস্মিত করেছে। কারণ, সরকারি কর্মসূচির সঙ্গে আমাদের কর্মসূচির কোনো কনফ্রনটেশন (বিরোধ) নেই। তারা তাদের প্রোগ্রাম করবে, আমরা আমাদের প্রোগ্রাম করব। তারা (সরকার) ছাড়া আর কেউ করতে পারবে না?’

পুলিশ কমিশনারের নির্দেশনা প্রত্যাহার করে সব রাজনৈতিক দল ও অন্যান্য সামাজিক প্রতিষ্ঠানকে সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপনে সহযোগিতা করার অনুরোধ জানান মির্জা ফখরুল।

১৭ থেকে ২৬ মার্চ রাষ্ট্রীয়ভাবে নেওয়া কর্মসূচির উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিদেশ থেকে রাষ্ট্রীয় মেহমানরা আসবেন। এটা আমাদের জাতির সম্মানের প্রশ্ন, আমাদের মর্যাদার প্রশ্ন। আমরা অবশ্যই সেটাকে সেভাবে দেখব। কিন্তু হঠাৎ​ ডিএমপি থেকে এ ধরনের নির্দেশনা আমি মনে করি স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালনের যে উদ্দেশ্য, সেটাকে ব্যাহত করবে।’

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপনে বিএনপির জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে ও সদস্যসচিব আবদুস সালামের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে দলটির স্বরচিত কবিতা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা কমিটির কর্মসূচি তুলে ধরেন সদস্যসচিব আবদুল হাই শিকদার।

আগামী ১৬ থেকে ৩০ মে উপজেলা ও থানা পর্যায়ে, ১ জুলাই থেকে ৩১ সেপ্টেম্বর জেলা পর্যায়ে, অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর বিভাগীয় পর্যায়ে ও ২০২২ সালের ২৬ মার্চ জাতীয়ভাবে সমাপনী কর্মসূচি উদ্‌যাপন করবে এ কমিটি। সংবাদ সম্মেলনে কমিটির সদস্য মজিবুর রহমান, নজরুল ইসলাম, ফরিদা ইয়াসমীন, রিয়াজ উদ্দিন, আরিফুর রহমান, শায়রুল কবির খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন