গতকাল সোমবার রিটটি সংশ্লিষ্ট শাখায় দায়ের করা হয় বলে জানান আইন ও সালিশ কেন্দ্রের আইনজীবী মো. শাহীনুজ্জামান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘স্বপন কুমার বিশ্বাসের ওপর আক্রমণ ও তাঁকে অপমান করার ঘটনা বিচারিক তদন্ত চেয়ে রিটটি করা হয়েছে। আগামীকাল বুধবারের কার্যতালিকায় রিটটি ৮৭ নম্বর ক্রমিকে রয়েছে। এদিন রিটের ওপর শুনানি হতে পারে।’

প্রসঙ্গত, ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সাময়িক বহিষ্কৃত মুখপাত্র নূপুর শর্মার ছবি দিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নড়াইল সদরের এক কলেজছাত্রের পোস্টকে কেন্দ্র করে তৈরি হওয়া উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে গত ১৮ জুন কলেজের অধ্যক্ষের গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেওয়া হয়৷ স্থানীয় বাসিন্দাদের ভাষ্য, নড়াইল সদরের মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের ওই ছাত্র ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার পরদিন কলেজে গেলে কয়েকজন ছাত্র তাঁকে ওই পোস্ট মুছে ফেলতে বলেন৷ ওই সময় অধ্যক্ষ ওই ছাত্রের ‘পক্ষ নিয়েছেন’ এমন রটনা ছড়িয়ে পড়লে সেখানে উত্তেজনা তৈরি হয়৷

এ সময় উত্তেজিত ছাত্ররা অধ্যক্ষ ও দুজন শিক্ষকের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন৷ খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে স্থানীয় ব্যক্তিদের সঙ্গে তাঁদেরও সংঘর্ষ বাধে। এ সময় ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে কলেজের কিছু ছাত্র ও স্থানীয় ব্যক্তিরা পুলিশের উপস্থিতিতে স্বপন কুমার বিশ্বাসের গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেন৷

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন