default-image

চট্টগ্রামে প্রথমে বিসিএস ক্যাডার পরে বিচারক পরিচয় দিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে নগরের কোতোয়ালি থানার ফিরিঙ্গিবাজারের বাসা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার অভিজিৎ ঘোষ (২২) বোয়ালখালী উপজেলার পূর্ব গোমদণ্ডী এলাকার বাসিন্দা। মামলাকারী তরুণী একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকের ছাত্রী। অভিজিতের সঙ্গে তাঁর ফেসবুকে পরিচয়। অভিজিৎ নিজেকে প্রথমে কিছুদিন বিসিএস ক্যাডারের পুলিশ কর্মকর্তা এবং পরে বিচারিক হাকিম বলে পরিচয় দিয়ে ওই ছাত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

বিজ্ঞাপন

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন বলেন, ‘প্রলোভন দেখিয়ে কিছুদিন আগে বন্ধু সত্যজিতের সহায়তায় মেয়েটিকে ফিরিঙ্গিবাজারে এক স্বজনের বাসায় নিয়ে ধর্ষণ করেন অভিজিৎ। বিশ্বাস জন্মানোর জন্য ৫০ টাকার দুটি স্ট্যাম্পে ভুয়া স্বাক্ষর করে বিয়ের ভুয়া হলফনামা তৈরি করেন।

পরে গত ২১ মার্চ সত্যজিতের সহায়তায় আবারও একই বাসায় নিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে অভিজিৎ। ওই দিন অভিজিতের আচরণে সন্দেহ হওয়ায় মেয়েটি পুরো বিষয় তাঁর মা–বাবাকে জানান।’

ওসি মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন জানান, মেয়ের বাবার চাপে অভিজিৎ-সত্যজিৎ ওই বাসায় যান। সেখানে তাঁরা গিয়ে হুমকি-ধমকি দেন। এরপর মেয়েটি কোতোয়ালি থানায় গিয়ে দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করলে পুলিশ অভিজিৎকে গ্রেপ্তার করে। অপর আসামিকে খুঁজছে পুলিশ।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন