বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের পূর্বাভাস বলছে, চলতি মাসের শেষের দিকে বাংলাদেশের উজানে ভারতীয় অংশে আরেকটি ঢল আসতে পারে। মাসের শেষের দিকে উজানে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকায় ওই ঢল হতে পারে। এর আগেরগুলোর তুলনায় আসন্ন ঢলটি বেশি শক্তিশালী হওয়ার আশঙ্কা আছে। তবে চলতি সপ্তাহের বাকি সময় বৃষ্টিপাত ধীরে ধীরে কমে আসতে পারে।

এ ব্যাপারে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিজ্জামান ভূইয়া প্রথম আলোকে বলেন, চলতি সপ্তাহের বাকি সময়জুড়ে উজানে বৃষ্টির তেমন সম্ভাবনা নেই। বৃষ্টি কমে আসায় বেশির ভাগ নদ-নদীর পানি কমে আসতে পারে।

কেন্দ্রের পূর্বাভাস অনুযায়ী, দেশের হাওরের জেলাগুলোর মধ্যে সিলেট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নেত্রকোনা, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, কিশোরগঞ্জ ও হবিগঞ্জের নদ-নদীর পানি কমে আসছে। আগামী কয়েক দিন তা আরও কমে আসতে পারে। নেত্রকোনার বালিয়াজুড়ি ও কলমাকান্দায় নদীর পানি এখনো বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। দেশের হাওর এলাকার ৩৯টি নদ-নদীর মধ্যে ৮টির পানি বাড়ছে, আর ৩০টির পানি কমছে। বাকি একটি নদীর পানি অপরিবর্তিত আছে।

কাল তাপমাত্রা বাড়বে

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বৃষ্টি কমে আসায় দেশের খুলনা বিভাগসহ রাজশাহী, পাবনা, চুয়াডাঙ্গা, পটুয়াখালী, গোপালগঞ্জের ওপর দিয়ে দাবদাহ বয়ে যাচ্ছে। আগামীকাল রোববার দাবদাহের এলাকা আরও বিস্তৃত হতে পারে। দেশের বেশির ভাগ এলাকার তাপমাত্রা বাড়তে পারে। আজ দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল চুয়াডাঙ্গায় ৩৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

গতকাল দিবাগত মধ্যরাত থেকে সারা দিনে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে নোয়াখালীতে, ৪৫ মিলিমিটার। এ ছাড়া ঢাকায় ৪১, টাঙ্গাইলে ৩৮ মিলিমিটার, নেত্রকোনায় ৩৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন