default-image

এমপিওভুক্ত (বেতন-ভাতার সরকারি অংশ) ঘোষণার ছয় মাস পর ১ হাজার ৬৩৩টি বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন দেওয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

নিয়মানুযায়ী এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা দিতে প্রতিষ্ঠানগুলোর অনুকূলে এমপিও কোড বরাদ্দ দিয়ে আদেশ জারি করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ। 

১৯ এপ্রিলের তারিখ দিলেও আজ বুধবার আদেশটি প্রকাশ করা হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে বলা হয়েছে।
মহাপরিচালক সৈয়দ গোলাম ফারুক প্রথম আলোকে বলেন, এখন বিধি অনুযায়ী নিয়োগ পাওয়া শিক্ষক-কর্মচারীরা প্রতিষ্ঠানপ্রধানের মাধ্যমে এমপিওভুক্তির আবেদন করবেন এবং আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া শেষ করে বেতন-ভাতা পাবেন।
তবে এখন আদেশ জারি হলেও পূর্বঘোষণা অনুযায়ী এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা গত বছরের ১ জুলাই থেকে বেতন-ভাতা পাবেন।
মোট প্রতিষ্ঠানের মধ্যে নিম্ন-মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪৩০টি, মাধ্যমিক ৯৯১টি, উচ্চমাধ্যমিক (কলেজ) ৯২টি, ৬৮টি স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং স্নাতক (পাস) স্তরের প্রতিষ্ঠান ৫২টি। আদেশে বলা হয়েছে, যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নীতিমালা অনুযায়ী যোগ্যতা বজায় রাখতে ব্যর্থ হবে, তাদের এমপিও স্থগিত করা হবে।
গত বছরে ২৩ অক্টোবর ২ হাজার ৭৩০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিভুক্ত করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এরপর বিশেষ বিবেচনায় আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হয়। এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা মূল বেতন ও কিছু ভাতা সরকার থেকে পেয়ে থাকেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0