ক্রেতারা একদিকে যেমন তাঁর লোকেশনের আশপাশের যেকোনো মুদিদোকান থেকে পছন্দমতো পণ্য ক্রয় করতে পারবেন, অন্যদিকে আবার নতুন কোনো উদ্যোক্তা কোনো বিশেষ পণ্য নিয়ে কাজ করতে চাইলে ফুডপল্লীর সাইটে এসে তাঁর পণ্যের কেনাবেচা করতে পারবেন। তবে, এ জন্য তাঁকে ভেরিফায়েড হতে হবে।

ফুডপল্লীর একজন পরিচালক আবু সুফিয়ান সাদী বলেছেন, দেশের বাজারে পণ্যসামগ্রীর উচ্চমূল্যে জনমনে নাভিশ্বাস উঠেছে, জনগণের কাছে কম মূল্যে, ঝামেলাহীন ও খাঁটি পণ্য পৌঁছে দেওয়াই আমাদের মূল লক্ষ্য।

আরেকজন পরিচালক তাহিয়াত আরশী বলেন, ‘আমাদের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। ইনশা আল্লাহ আমাদের সেবা ও কার্যক্রম ইতিবাচক সাড়া ফেলবে।’

ফুডপল্লীর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে উদ্যোক্তারা বলেন, মানুষের অর্থনৈতিক সীমার মধ্যে পণ্য সরবরাহ করা, দেশীয় মানুষের কর্মসংস্থান করা, মানুষ যেন ঘরে বসে তাঁদের প্রয়োজনীয় সামগ্রী স্বাচ্ছন্দ্যে, স্বল্পমূল্যে ক্রয় করতে পারে, এর জন্য তাদের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন