default-image

রুহুল আলম আল মাহবুব বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর কন্যা সায়মা ওয়াজেদের কাছ থেকে উদ্বুদ্ধ হয়েই আজকের এ আয়োজন। শুধু ব্যবসা করাটাই উদ্দেশ্য নয়, সামাজিকভাবেও আমরা দায়বদ্ধ। এ শিশুরা আমাদের সম্পদ। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমাদের এ ট্যাবু থেকে বের হয়ে আসতে হবে এবং এই বিশেষ শিশুদের মেধার যোগ্যতায় কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কাজ করে যাবে ফেয়ার গ্রুপ।’

হুয়াং সাং উ বলেন, আজকের এ আর্ট ক্যাম্পের মধ্য দিয়ে স্যামসাং ফ্ল্যাগশিপ স্টোর সবার জন্য খুলে দেওয়া হলো। বিশেষ এ শিশুদের সঙ্গে নিয়ে আজকের উদ্যোগ সত্যিই অসাধারণ। স্যামসাং সব সময় সামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যায়।
সংসদ সদস্য সুবর্ণা মোস্তফা, অভিনেতা আফজাল হোসেন আর্ট ক্যাম্পে যোগ দেন। এ ছাড়া পরিচালক অমিতাভ রেজা, অভিনয়শিল্পী অপি করিম ও ইরেশ যাকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তাঁরা বিশেষ শিশুদের সঙ্গে সময় কাটান এবং তাদের উৎসাহ ও প্রেরণা দেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব কমিউনিকেশনস ডিজঅর্ডারের সহায়তায় এ উদ্যোগ নেওয়া হয়। ওই বিভাগের চেয়ারপারসন তৌহিদা জাহান এ সময় উপস্থিত সবার উদ্দেশে বক্তব্য দেন।

চিত্রশিল্পী এফ রহমান ভুটান ও রুবিনা নার্গিসের সহায়তায় ১৯ জন বিশেষ শিশু প্রতিযোগী রংতুলির আঁচড়ে পয়লা বৈশাখকে ফুটিয়ে তোলায় মেতে ওঠে। প্রতিযোগিতা শেষে আমন্ত্রিত অন্যান্য অতিথি সবার উদ্দেশে অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য দেন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন