default-image

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলায় বোনকে নকল সরবরাহ করার দায়ে ভাই মো. ইসমাইল হোসেনকে (২০) দুই বছরের কারাদণ্ড এবং নগদ ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ ছাড়া নকলের দায়ে মতলব উত্তর উপজেলায় তিন দাখিল পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার ঘিলাতলী মাদ্রাসাকেন্দ্রে ভ্রাম্যমাণ আদালত ইসমাইলকে এই শাস্তি দেন। তাঁর বাড়ি উপজেলার বদরপুর গ্রামে। আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফাহমিদা হক।

মাদ্রাসাকেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় দাখিলের গণিত পরীক্ষা চলার সময় বোনকে নকল সরবরাহ করছিলেন ইসমাইল হোসেন। এ সময় মতলব দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার আইচ তাঁকে নকলসহ হাতেনাতে ধরে ফেলেন। পরে সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাঁকে ওই শাস্তি দেওয়া হয়।

ইউএনও বলেন, পরীক্ষার্থীকে নকল সরবরাহের দায়ে ওই ব্যক্তিকে অর্থ জরিমানাসহ দুই বছরের জেল দেওয়া হয়।

অন্যদিকে মতলব উত্তর উপজেলার ফরাজীকান্দি আল ওয়েশিয়া কামিল মাদ্রাসা পরীক্ষাকেন্দ্রে তিন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়। গণিত পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কৃত পরীক্ষার্থীরা হলেন সাড়ে পাঁচআনী হোসাইনিয়া ফাজিল মাদ্রাসা সাধারণ বিভাগের ছাত্র মো. আরমান হোসেন, ছেংগারচর পৌরসভার আউলিয়াবাগ দাখিল মাদ্রাসার ছাত্র জাকারিয়া ও দশানী মাদ্রাসার আবদুর রহমান।

কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও মতলব উত্তর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. তারেক মাহমুদ বহিষ্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, চাঁদপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুর আহম্মদ হাতেনাতে নকলসহ ধরার পর ওই তিন পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন