default-image

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা শুরু করছে ব্র্যাক। কাল শনিবার থেকে ঢাকায় ১৫টি এবং চট্টগ্রামে ১টি বুথে এই কার্যক্রম শুরু হবে।

বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ নতুন করে বৃদ্ধি পাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই কার্যক্রম বিস্তারের পরিকল্পনা করেছে ব্র্যাক। পর্যায়ক্রমে ঢাকায় সর্বমোট ৩২টি এবং চট্টগ্রামে ৪টি বুথের মাধ্যমে অধিক সংক্রমণ এলাকায় কার্যক্রমটি বিস্তৃত করার পরিকল্পনা রয়েছে।

শনি থেকে বৃহস্পতিবার প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলবে এবং প্রতিটি বুথে প্রতিদিন ১৫০টি করে নমুনা পরীক্ষা সম্ভব হবে।

বাংলাদেশে বর্তমানে আরটি-পিসিআর টেস্ট পদ্ধতিতে করোনাভাইরাসের বেশির ভাগ নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ফল পেতে অন্তত ২৪ ঘণ্টা কিংবা তারও বেশি সময় লাগে। কিন্তু অ্যান্টিজেন টেস্টে নমুনা সংগ্রহের পর অল্প সময়েই মধ্যেই পরীক্ষার ফল জানা যায়। অ্যান্টিজেন টেস্টের মাধ্যমে নমুনা পরীক্ষায় সময় লাগবে সর্বোচ্চ ৩০ মিনিট।

বিজ্ঞাপন

আজ শুক্রবার ব্র্যাকের জ্যেষ্ঠ মিডিয়া ম্যানেজার মাহবুবুল আলম কবীরের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

কারা, কীভাবে পাবেন এই সুবিধা

নিবন্ধিত চিকিৎসকের পরামর্শে অথবা করোনাভাইরাসের উপসর্গ, যেমন জ্বর, সর্দি, কাশি, গলাব্যথা ও শ্বাসকষ্ট রয়েছে, এমন ব্যক্তি বা কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে আসা যে কেউ নমুনা জমা দিতে পারবেন ব্র্যাকের বুথের মাধ্যমে।

অনলাইনে আবেদনের পরে বুথে উপস্থিত হলে ব্র্যাক কর্মী রোগীর লক্ষণ এবং রোগের ইতিহাস জেনে কোন পদ্ধতিতে (অ্যান্টিজেন পদ্ধতি অথবা আরটি-পিসিআর) করোনা পরীক্ষা করা হবে, তা নির্ধারণ করবেন। সাধারণত উপসর্গ থাকলে অ্যান্টিজেন পদ্ধতিতে পরীক্ষা করা হবে এবং পরীক্ষার ফল পজিটিভ হলে ৩০ মিনিটের মধ্যে জানিয়ে দেওয়া হবে। পজিটিভ ফল ৩-৪ ঘণ্টার মধ্যে ওয়েবসাইটে আপলোড করা হবে।

তবে উপসর্গ থাকা সত্ত্বেও কারও টেস্টের ফল যদি নেগেটিভ হয়, তাহলে পুনরায় তার নমুনাটি আরটি-পিসিআর পদ্ধতিতে পরীক্ষা করা হবে (নমুনা একবারই নেওয়া হবে)।

ব্র্যাকের বুথের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষার জন্য অবশ্যই প্রত্যেক সেবাগ্রহীতাকে অনলাইনে coronatest.brac.net এই লিংকে গিয়ে নিবন্ধন করতে হবে এবং ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’-এ ‘বিল পে’ অপশন-এর মাধ্যমে সরকার নির্ধারিত ১০০ টাকা ফি পরিশোধ করতে হবে।

ব্র্যাকের বুথ যেখানে

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে ১০টি, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ৫টি এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের আওতাধীন একটি বুথে অ্যান্টিজেন পদ্ধতিতে করোনার নমুনা সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালনা করবে ব্র্যাক।

এগুলোর মধ্যে ডিএনসিসির অধীনে মিরপুর ১৩ নম্বরের সরকারি ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, উত্তরা ৯ নম্বর সেক্টরের আধুনিক মেডিকেল কলেজ, উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টরের উত্তরা হাইস্কুল, মগবাজারের মধুবাগে আসাদুজ্জামান খান কামাল কমিউনিটি সেন্টার, মিরপুর ১ নম্বরে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধসংলগ্ন ১০ নম্বর ওয়ার্ডে কমিউনিটি সেন্টার, মোহাম্মদপুরের বাবর রোডে চাঁদেরহাট ঈদগাহ মাঠ প্রাঙ্গণে, মিরপুর ১৪ নম্বরে ঢাকা ডেন্টাল কলেজ ও হাসপাতাল, আগারগাঁও শেরেবাংলা নগরে জাতীয় কিডনি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, ফার্মগেটের তেজতুরি বাজারে আবদুল হালিম কমিউনিটি সেন্টার এবং বনানীর ২২ নম্বর রোডে ১২ নম্বর বাড়িতে ইয়র্ক হাসপাতালে এই সেবা প্রদান করা হবে।

ডিএসসিসিতে নয়াপল্টনের পল্টন কমিউনিটি সেন্টার, বাসাবো কমিউনিটি সেন্টার, ওয়ারী বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পুরান ঢাকার জনসন রোডে ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ এবং আজিমপুর মাতৃসদন ও শিশুস্বাস্থ্য প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানে এই সেবা পাওয়া যাবে।

এ ছাড়া চট্টগ্রামে পাঁচলাইশ বিবিরহাটে ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসে এই সেবা প্রদান করবে ব্র্যাক।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন