ভারতের জলপাইগুড়ি কিশোর সংশোধন কেন্দ্রে ১০ মাস আটক থাকার পর তিন বাংলাদেশি কিশোরকে ফেরত দিয়েছে ভারতীয় পুলিশ।
লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দর জিরো পয়েন্ট দিয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ওই কিশোরদের ফেরত দেওয়া হয়। ভারতের চ্যাংরাবান্ধা অভিবাসন পুলিশ কর্মকর্তা বাঁধন চন্দ্র রায় বাংলাদেশের বুড়িমারী স্থলবন্দর অভিবাসন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলামের কাছে তাদের হস্তান্তর করেন।
বুড়িমারী অভিবাসন পুলিশ ও বিজিবি সূত্র তিনজনের পরিচয় নিশ্চিত করেছে। তারা হলো নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার ঠাকুরগঞ্জ গ্রামের রাসেল ইসলাম (১৫), রুবেল ইসলাম (১৪) ও শ্যামল চন্দ্র দাস (১৫)।
রাসেল ইসলাম বলে, ২০১৪ সালের প্রথম দিকে এ এলাকার সীমান্ত দিয়ে তারা ভারতের হলদিবাড়ি গ্রামে বেড়াতে যায়। বিনা পাসপোর্টে ভ্রমণের দায়ে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) তাদের আটক করে ভারতীয় পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। পরে ভারতীয় আদালত তাদের জলপাইগুড়ি জেলা কিশোর সংশোধন কেন্দ্রে পাঠায়।
ওসি আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, গতকালই তিন কিশোরকে নিয়মানুযায়ী তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন