বাড়ির উঠানজুড়ে বিশাল শামিয়ানা। শামিয়ানার নিচে অতিথি আপ্যায়নের জন্য চেয়ার-টেবিলের ব্যবস্থা। বাড়িতে উৎসবের ধুমধাম। দুপুর থেকে সেই বাড়িতে অভিভাবক, আত্মীয়স্বজনসহ একে একে বর-কনে এসে হাজির হলেন।
গতকাল শনিবার মৌলভীবাজার সদর উপজেলার কনকপুর ইউনিয়নের আব্দা গ্রামে দরিদ্র পরিবারের ১২ জোড়া ছেলেমেয়ের একসঙ্গে বিয়ের জন্য ছিল এই আয়োজন।
সরেজমিনে দেখা গেছে, উৎসবের রঙে সাজানো হয়েছে আব্দা গ্রামের হাজি ফিরোজ মিয়ার বাড়িটি। বাড়িভর্তি লোকজন। গ্রামের মানুষ এসেছেন। এসেছেন ১২ জোড়া বর-কনে এবং তাঁদের অভিভাবক ও আত্মীয়-কুটুম। পারিবারিকভাবে সবার বিয়ে ঠিক করা হয়েছে। কিন্তু আর্থিক সংকটের কারণে বর যেমন কনে তুলে নিতে পারছিলেন না, তেমনি কনেপক্ষ পারছিল না কন্যাদানের আয়োজন করতে। এই পরিবারগুলোকে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলার সুযোগ করে দিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক ত্রাণ বিতরণকারী প্রতিষ্ঠান আল-ইমদাদ ফাউন্ডেশনের বাংলাদেশ শাখা।
বর ও কনের বাড়ি মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও সিলেট জেলার বিভিন্ন উপজেলায়। প্রত্যেক দম্পত্তিকে দেওয়া হয়েছে নিয়মিত আয়ের জন্য একটি নতুন রিকশা, সংসারের প্রাথমিক খরচের জন্য ১২ হাজার টাকা এবং গাড়িভাড়া ও টুকিটাকি খরচপাতির জন্য প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা করে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন