ভূমিসেবা হটলাইনে আসা অভিযোগের ৪৬ শতাংশ নিষ্পত্তি: ভূমিসচিব

বিজ্ঞাপন
default-image

ভূমিসচিব মো. মাক্‌ছুদুর রহমান পাটওয়ারী বলেছেন, এক মাসে ভূমিসেবা হটলাইন ১৬১২২–এ পাওয়া ১ হাজার ২৯১টি অভিযোগের ৪৬ শতাংশ ইতিমধ্যে নিষ্পত্তি করা হয়েছে। বাকিগুলোও নিষ্পত্তির অপেক্ষায় আছে।

‘ভূমি মন্ত্রণালয়ের সার্বিক কার্যক্রম পর্যালোচনা’ শীর্ষক একটি কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভূমিসচিব এই তথ্য জানান। আজ বুধবার সচিবালয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে এই অনুষ্ঠান হয়। গত ১০ অক্টোবর ভূমিসেবা হটলাইনের উদ্বোধন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতির বক্তব্যে মাক্‌ছুদুর রহমান পাটওয়ারী বলেন, ‘কিছুদিনের মধ্যেই সংশোধিত নিয়োগবিধি অনুযায়ী ভূমি মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন পদে নিয়োগপ্রক্রিয়া শুরু হবে। এ ছাড়া, আমরা ভূমি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ আরও জোরালো করার উদ্দেশ্যে প্রতিটি বিভাগে আঞ্চলিক ভূমি প্রশাসন প্রশিক্ষণকেন্দ্র স্থাপনের পদক্ষেপ নিয়েছি।’

ভূমিসচিব কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী কর্মকর্তাদের মাঠপর্যায়ের অফিস পরিদর্শন ও পরবর্তী সময়ে অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ, গণশুনানি করা, স্বচ্ছতার সঙ্গে ক্ষতিপূরণের অর্থ দেওয়া এবং ভূমি রাজস্ব আহরণে আরও ভালোভাবে কাজ করে যাওয়ার নির্দেশ দেন।

ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান উম্মুল হাছনা বলেন, ‘দেশব্যাপী ই-নামজারি ব্যবস্থা স্থাপনের পরে আমরা এখন ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ব্যবস্থা ডিজিটাইজ করার কাজ করছি। পর্যায়ক্রমে আমরা অন্যান্য ভূমিসেবাও ডিজিটাইজেশনের আওতায় আনার কাজ করব।’
আজ ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও ময়মনসিংহ বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব), উপ ভূমি সংস্কার কমিশনার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ও ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তারা কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালায় ভূমি–সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ে পর্যালোচনা করা হয় এরপর বিভিন্ন অংশগ্রহণকারীরা নিজেদের মতামত উপস্থাপন করেন।

কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. তসলীমুল ইসলাম, ভূমি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মজিবর রহমান, মো. সিরাজ উদ্দিন আহমেদ, মো. আবদুল হক, আনিস মাহমুদ প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন