কিশোরগঞ্জের ভৈরবে পানিতে ডুবে সাউদা বেগম (৭) ও মাইশা আক্তার (৬) নামের দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের ফাঁড়ি রঘুনাথপুর গ্রামের একটি পুকুর থেকে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।
সাউদা ও মাইশা স্থানীয় ফাঁড়ি রঘুনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, সাউদা ফাঁড়ি রঘুনাথপুর গ্রামের হোসেন মিয়ার এবং মাইশা প্রতিবেশী মিলন খানের মেয়ে। গত সোমবার দুপুরে স্কুল থেকে ফিরে তারা বাড়ির বাইরে খেলতে বের হয়। সন্ধ্যায়ও বাড়ি ফিরে না আসায় তাদের সন্ধান চেয়ে মাইকিং করা হয়।
গতকাল সকাল আটটার দিকে গ্রামের একটি পুকুরের পানিতে সাউদার লাশ ভেসে ওঠে। পরে একই পুকুর থেকে মাইশার লাশ উদ্ধার করা হয়।
ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম তালুকদার প্রথম আলোকে বলেন, অভিভাবকদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মৃতদেহ পরিবারের সদস্যদের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন