কোটালীপাড়া ও লৌহজংয়ে প্রধানমন্ত্রী

ভোট দিতে বাধা দিলে প্রতিহত করুন

বিজ্ঞাপন
default-image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আগামী ৫ জানুয়ারি নির্বাচন হবেই হবে। আপনারা সবাই ভোটকেন্দ্রে যাবেন। যারা ভোট প্রদানে বাঁধা দেবে, সবাই মিলে তাদের প্রতিহত করুন।’
গতকাল শুক্রবার দুপুরে নিজের নিজ নির্বাচনী এলাকা গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় শহীদ মিনার চত্বরে আওয়ামী লীগ আয়োজিত কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বিএনপি স্বেচ্ছায় নির্বাচন বর্জন করেছে। তাই নির্বাচনে বাধা দেওয়ার কোনো অধিকার তাদের নেই।
বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তিনি আন্দোলনের ডাক দিয়ে ঘরে বসে আরাম-আয়েশ করেন। আর দেশবাসীকে অবরুদ্ধ করে রাখেন। তাদের আন্দোলন ধ্বংসের জন্য। তাঁরা মানুষ হত্যা করে সারা দেশে তাণ্ডব চালাচ্ছে।’
শেখ হাসিনা বলেন, ‘পাকিস্তানের সংসদে কাদের মোল্লার ফাঁসির নিন্দা ও শোক প্রস্তাব আনায় বিরোধীদলীয় নেত্রী মর্মাহত হয়েছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন। তিনি আসলে ওই কারণে মর্মাহত হয়েছেন, না-কি কাদের মোল্লার ফাঁসি হওয়ায় মর্মাহত হয়েছেন? তাঁর কণ্ঠ শুনে আমার মনে হয়েছে, তিনি কাদের মোল্লার ফাঁসি হওয়ায় মর্মাহত হয়েছেন।’
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সাংসদ শেখ হেলাল উদ্দিন, বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্টের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মির্জা আজম, গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক চৌধুর প্রমূখ বক্তৃতা করেন।
কোটালীপাড়ার পর বিকেলে মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় জনসভায় বক্তৃতা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানেও তিনি জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘নির্বাচনে কেউ বাধা দিলে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।’
লৌহজং ডিগ্রি কলেজ মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার কঠোর সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বিরোধীদলের নেত্রী আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মারছেন। ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ করে দিচ্ছেন। গরীবের পেটে লাথি মারছেন। আর তিনি ঘরে নিরাপদে বসে টিভিতে সে দৃশ্য দেখছেন। আর মুরগির সুপ খাচ্ছেন।’
লৌহজং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফকির আব্দুল হামিদের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তৃতা করেন মুন্সিগঞ্জ-২ আসনের প্রার্থী সাগুফতা ইয়াসমিন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, মুন্সিগঞ্জ-৩ আসনের একক প্রার্থী মৃণাল কান্তি দাস, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মহিউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক শেখ লুৎফর রহমান প্রমুখ। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী গতকাল বিকেলে মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলায় একটি সমাবেশে ভাষণ দেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন