বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আদালতের আইনজীবী খায়রুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যে এ ডিজিটাল কজলিস্ট ডিসপ্লের উপকারিতা পেতে শুরু করেছি। এর মাধ্যমে আগে থেকে মামলার আদেশ, স্বাক্ষী, চার্জ-শুনানি, দরখাস্ত শুনানি, বদলি চার্জ শুনানি, একতরফা শুনানি, জামিন শুনানি, আপিল শুনানি, পুলিশ রিপোর্ট শুনানিসহ মামলার আদ্যোপান্ত জানতে পারছি। যেটা জানতে মক্কেলকে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হতো।’

জেলা ও দায়রা জজ মো. মহসিনুল হক বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আব্দুস সবুর মন্ডলের পক্ষ থেকে মামলার বাদি-বিবাদি ও আইনজীবীদের কাছে সেবা পৌঁছে দিতে এ কজলিস্ট প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

উদ্বোধনের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক নুরুল আলম মোহাম্মদ নিপু, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. ওসমান গনি, মো. নুরুল ইসলাম, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মুহাম্মদ জাকারিয়্যা, আ বা ম নাহিদুজ্জামান প্রমুখ।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন