default-image

গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে আজ মঙ্গলবার জামিনে মুক্তি পেয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ, রফিকুল ইসলাম মিয়া ও বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন।

কারাগার কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ১২টায় রফিকুল ইসলাম মিয়া ও খন্দকার মাহবুব হোসেনের জামিনের কাগজপত্র কারাগারে পৌঁছায়। তা যাচাই-বাছাই শেষে অন্য কোনো মামলায় আটকাদেশ না থাকায় আজ বেলা সোয়া ১১টার দিকে কারাগার থেকে তাঁদের জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়। এই দুই নেতা কাশিমপুর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের পার্ট-২-এ ছিলেন। দুপুর সাড়ে সাড়ে ১২টার দিকে মুক্তি পান মওদুদ আহমদ। তিনি কাশিমপুর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের পার্ট-১-এ ছিলেন।
কারাগার থেকে বেরিয়ে আসার পর রফিকুল ও মাহবুবের স্বজন ও বিএনপির নেতা-কর্মীরা তাঁদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

মুক্তি পেয়ে রফিকুল ইসলাম মিয়া সাংবাদিকদের বলেন, মধ্যবর্তী নির্বাচনের আয়োজন দ্রুত করতে হবে। মধ্যবর্তী নির্বাচন না দিলে দেশে গণ-অভ্যুত্থান শুরু হবে। খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, এই ফ্যাসিবাদী সরকারকে যত দ্রুত সম্ভব বিদায় নিতে হবে। রাজধানীর বাংলামোটরে বাসে অগ্নিসংযোগ ও পুলিশ হত্যা মামলায় রফিকুল ইসলাম মিয়ার জামিন আদেশ বহাল রাখেন চেম্বার বিচারপতি। এর আগে ২৬ জানুয়ারি এ মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পান তিনি। রাজধানীর রমনা থানায় দায়ের করা ভাঙচুর ও বিস্ফোরক মামলায় গতকাল খন্দকার মাহবুব হোসেনের জামিন মঞ্জুর করেন হাইকোর্ট। রাজধানীর গুলশানে সরকারি সম্পত্তি আত্মসাতের অভিযোগে করা মামলাসহ ছয়টি মামলায় জামিন পেয়েছেন মওদুদ।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন