বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

‘হিন্দুদের মন্দিরে হামলার বিষয়ে হালনাগাদ অবস্থানবিষয়ক’ কূটনৈতিক চিঠিটি গত রোববার ঢাকার বিভিন্ন বিদেশি মিশনে ও জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থার দপ্তরে পাঠানো হয়। দুর্গাপূজার সময় দেশের ছয়টি জেলায় যেসব সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে, তারপর পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা চিঠিতে উল্লেখ করা হয়। একই সঙ্গে বলা হয়, আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমে মৃত্যু এবং ধর্ষণ নিয়ে হঠাৎ করে ভুল তথ্যের বিস্তার এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ডাহা মিথ্যার প্রচার সরকারকে উদ্বিগ্ন করে

তুলেছে। রাজনৈতিক কিংবা অন্য কোনো স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে দেশে-বিদেশে স্বার্থান্বেষী কোনো মহলের এ ধরনের অপতৎপরতাকে প্রশ্রয় দেওয়া ঠিক হবে না।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন গত বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে বলেন, সম্প্রতি ধর্মীয় সহিংসতার সময় ছয়জন মারা গেছেন। তাঁদের মধ্যে হিন্দু সম্প্রদায়ের দুই জন মারা গেছেন। ওই দুই জনের মধ্যে একজনের স্বাভাবিক এবং অন্যজনের পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে। হিন্দুদের একটি মন্দিরেও হামলা হয়নি বলে তিনি উল্লেখ করেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিভিন্ন মিশনে যে চিঠি পাঠিয়েছে, তাতেও হিন্দু সম্প্রদায়ের দুই জনের মৃত্যু এবং মন্দিরে হামলার প্রসঙ্গ নিয়ে একই তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, দুর্গাপূজার সময় হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আরও বলা হয়েছে, গুজব ছড়ানো ও উসকানি দেওয়া থেকে বিরত থাকতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন