কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলায় শনিবার দিবাগত রাতে দুর্বৃত্তরা মুজিব উল্লাহ ওরফে বাদল (২৫) নামের এক যুবককে গলা কেটে হত্যা করেছে। এ সময় তাঁর বাবাকে বেধড়ক মারধর করা হয়।
স্থানীয় সূত্রের ভাষ্যমতে, শনিবার রাত তিনটার দিকে একদল দুর্বৃত্ত মুজিব উল্লাহদের বসতবাড়িতে হামলা চালায়। দুর্বৃত্তরা প্রথমে মুজিব উল্লাহকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এতে বাধা দিলে তাঁর বাবা আবুল হাসেমকে (৭০) বেধড়ক মারধর করা হয়। পরে দুর্বৃত্তরা দা দিয়ে মুজিব উল্লাহর গলা কেটে বসতবাড়ি ভাঙচুর করে টাকাসহ প্রায় পাঁচ লাখ টাকার মালামাল লুটে নিয়ে পালিয়ে যায়।
স্থানীয় সূত্রমতে, জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নের আঁধারঘোনা এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। এ বিরোধের জের ধরে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।
সূত্র জানায়, গুরুতর আহত অবস্থায় মুজিব উল্লাহকে প্রথমে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। গতকাল রোববার দুপুরে তিনি সেখানে মারা যান। আবুল হাসেম কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
মহেশখালী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবু জাফর বলেন, জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন গলা কেটে মুজিব উল্লাহকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় গতকাল বিকেল চারটা পর্যন্ত থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি।
মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহামঞ্চদ আলমগীর হোসেন বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের ধরার জন্য পুলিশ চেষ্টা করছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন