default-image

করোনাকালে সরকারি ও বেসরকারি কর্মজীবী নারীদের মাতৃত্বকালীন ছুটি ছয় মাসের পরিবর্তে এক বছর করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানিয়ে সরকারের পাঁচ সচিব বরাবর আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শাম্মী আক্তারের পক্ষে আইনজীবী জে আর খান রবিন আজ সোমবার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে ওই আইনি নোটিশ পাঠান। পাঁচ সচিব হলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব, জনপ্রশাসনসচিব, আইনসচিব, স্বাস্থ্যসচিব এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসের উৎপত্তি ও সংক্রমণের দিক তুলে ধরে নোটিশে বলা হয়, কর্মজীবী নারীরা তাঁদের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন।

বর্তমান করোনাভাইরাসের কারণে অন্তঃসত্ত্বা নারীদেরও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত কর্মক্ষেত্রে যেতে হচ্ছে। সরকার ইতিপূর্বে বাংলাদেশ সার্ভিস রুল (পার্ট-১) এর বিধি ১৯৭ (১) সংশোধন করে সরকারি কর্মজীবী নারীদের ক্ষেত্রে মাতৃত্বকালীন ছুটি চার মাসের পরিবর্তে ছয় মাস করলেও বর্তমান পরিস্থিতিতে তা অত্যন্ত অপ্রতুল।

কারণ, গর্ভবতী নারী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে তাঁর গর্ভের সন্তানসহ পরিবারের সবাই আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বিদ্যমান থাকে। এতে একটি পরিবার পুরোপুরি হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়ে। মাতৃত্বকালীন ছুটির নিয়ম অনেক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান মানছে না। এতে সরকারি ও বেসরকারি কর্মজীবী নারীদের মধ্যে বৈষম্য রয়েছে।

নোটিশের শেষাংশে বলা হয়, নোটিশ পাওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে করোনাকালের জন্য সরকারি ও বেসরকারি কর্মজীবী নারীদের মাতৃত্বকালীন ছুটি ছয় মাসের পরিবর্তে এক বছর করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

অন্যথায় হাইকোর্ট বিভাগে রিট দায়েরসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে নোটিশদাতা বাধ্য হবেন বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন