মানিকগঞ্জে ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে ৩ জনের মৃত্যু

বিজ্ঞাপন

মানিকগঞ্জে গত ২৪ ঘণ্টায় জেলা সদরের ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। কাশি ও শ্বাসকষ্টের মতো করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে স্বজনেরা তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করান।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আরশ্বাদ উল্লাহ এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

নিহত তিনজনের মধ্যে দুজনের বাড়ি সদর উপজেলায় এবং একজনের বাড়ি ঘিওর উপজেলায়।

জেলা সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মানিকগঞ্জ পৌর এলাকার মৃত নারী একটি হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতাকর্মী ছিলেন। তিনি শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। পরিস্থিতি খারাপ হলে স্বজনেরা গতকাল বুধবার সকালে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যান। তাঁকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে গতকাল বিকেল চারটার দিকে তিনি মারা যান। তাঁর সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে আরও জানা গেছে, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে গত মঙ্গলবার বিকেলে দুই ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে যান স্বজনেরা। করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকায় তাঁদের হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সেখানে শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে গতকাল রাত দেড়টার দিকে একজন ও রাত দুইটার দিকে আরেকজন মারা যান।

সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা লুৎফর রহমান বলেন, ওই দুজনের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

জেলা সদরের ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আরশ্বাদ উল্লাহ বলেন, মৃত তিনজনই শ্বাসকষ্ট ও কাশিতে আক্রান্ত ছিলেন। বিষয়টি পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। হাসপাতালে তাঁদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এরপর নমুনাগুলো পরীক্ষার জন্য ঢাকার সাভারে প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয়েছে।

ঘিওর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আইরিন আক্তার বলেন, মৃত ব্যক্তিদের সংস্পর্শে আসা সবাইকে শনাক্ত করে কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন