সাভারের রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় করা মামলাগুলোর সর্বশেষ অবস্থা জানাতে সাভার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে রাজধানীতে অবস্থিত ঝুঁকিপূর্ণ ভবনগুলোর একটি তালিকা দেওয়ার জন্য রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে (রাজউক) নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি আবদুর রবের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল সোমবার এ আদেশ দেন। ২৬ এপ্রিলের মধ্যে আদালতে এসব প্রতিবেদন জমা দিতে হবে।
সাভারের রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের চারটি রিট আবেদন ও আদালতের স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে দেওয়া রুলের বিষয়ে গতকাল শুনানি হয়। এসব আবেদনের পক্ষে আদালতে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী কামাল হোসেন। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী সারা হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. আল আমিন।
জানতে চাইলে সারা হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতির মাত্রা ও ক্ষতিপূরণের হার নির্ধারণের জন্য ১৪ জনের একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি করা হয়েছিল। এ কমিটির প্রধান ছিলেন সেনাবাহিনীর নবম পদাতিক ডিভিশনের জিওসি। সোমবার এই প্রতিবেদন আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।
২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ডের নয়তলা ভবন রানা প্লাজা ধসে পড়ে। ওই ভবনে তিনটি পোশাক কারখানা ছিল। এ ধসের ঘটনায় ১ হাজার ১৩৪ জন মারা যান।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0