লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় মায়ের অসাবধানতায় বালতিতে পড়ে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের বাড়াইপাড়া গ্রামে গতকাল রোববার এ ঘটনা ঘটে।
ওই শিশুর নাম আনিছুর রহমান। সে বাড়াইপাড়া গ্রামের নূর মোহাম্মদের ছেলে। মায়ের নাম আর্জিনা বেগম। বয়স হয়েছিল মাত্র ষোলো মাস।
এলাকাবাসী ও ওই শিশুর পরিবারের সদস্যরা জানান, গতকাল দুপুরে আর্জিনা বেগম বালতিতে কাপড় ধোয়ার পর তা শুকানোর জন্য বাড়ির বাইরে যান। বালতিতে কাপড় ধোয়ার পানি ছিল। এ সময় আনিছুর বালতির পাশে খেলা করছিল। একপর্যায়ে সে ওই বালতির পানিতে পড়ে যায়। কাপড় শুকাতে দিয়ে বাড়িতে এসে আর্জিনা দেখেন তাঁর ছেলে বালতির পানিতে উপুড় হয়ে পড়ে আছে। ওই সময় আর্জিনা ও তাঁর স্বজনেরা শিশুটিকে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।
সন্তান হারিয়ে আর্জিনা বেগম বলেন, ‘ওরে সোনা বাবুরে কেন তুই আমাকে একটু সময় দিলি না। তোকে ছাড়া আমি এখন কী নিয়ে বাঁচব।’ তাঁর আহাজারিতে তাঁদের বাড়িতে উপস্থিত অনেকের চোখে পানি আসে।
শিশুটির বাবা নূর মোহাম্মদ বলেন, সকালেই শিশুটিকে আদর করে তিনি প্রতিদিনের মতো ব্যবসার কাজে বাড়ির বাইরে যান। পরে শুনতে পান তাঁর সেই আদরের ছেলে আর নেই। তিনি বলেন, এমন অসাবধানতার জন্য যেন আর কোনো বাবা-মাকে সন্তান হারাতে না হয়।
হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) আক্কাসুর রহমান বলেন, শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন