মুন্সিগঞ্জে ‘পুলিশের অস্ত্র ছিনতাই করে পালানোর সময়’ গোলাগুলিতে যুবক নিহত এবং এক পুলিশ কনস্টেবল আহত হওয়ার ঘটনায় শ্রীনগর থানায় তিনটি মামলা হয়েছে। গতকাল বুধবার দায়ের করা সব মামলার বাদী হয়েছে পুলিশ। নিহত ওই যুবকের নাম মো. শাহীন (২৮)। তাঁর মরদেহ মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে গতকাল বিকেলে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
তিনটি মামলার মধ্যে দুটিতে নিহত মো. শাহীনসহ তাঁর পাঁচ সহযোগীকে আসামি করা হয়। আর শাহীন নিহত হওয়ার ঘটনায় আসামি করা হয় অজ্ঞাত ব্যক্তিকে। শ্রীনগর থানার পুলিশ জানায়, পুলিশের ওপর হামলা মামলার বাদী হয়েছেন শ্রীনগর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মুস্তাফিজুর রহমান। অস্ত্র আইনে অপর মামলাটির বাদী হন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান। এ দুটি মামলায় শাহীন ও তাঁর পাঁচ সহযোগীকে আসামি করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে শ্রীনগর থানার ওসি মো. মাহবুবুর রহমান জানান, এ ঘটনায় থানায় তিনটি মামলা হয়েছে। শাহীনের পরিবারের পক্ষে কেউ থানায় অভিযোগ করেননি। এ বিষয়ে জানতে গতকাল শাহীনের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তা সম্ভব হয়নি।
মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বাঘরা ইউনিয়নের রুদ্রপাড়া এলাকায় গত মঙ্গলবার ‘পুলিশের অস্ত্র ছিনতাই করে পালানোর সময়’ গোলাগুলিতে শাহীন নামে এক যুবক নিহত হন। পুলিশ শাহীনকে গ্রেপ্তার করতে গেলে এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। পুলিশের ভাষ্য, এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন আল আমিন নামে এক পুলিশ কনস্টেবল। তাঁকে আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন