মেলান্দহে মারা যাওয়া সাবেক ইউপি সদস্য করোনায় আক্রান্ত ছিলেন

বিজ্ঞাপন
default-image

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলায় উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া সাবেক এক ইউপি সদস্য কোভিড–১৯ এ (করোনাভাইরাস) আক্রান্ত ছিলেন। ময়মনসিংহের পিসিআর ল্যাব থেকে তাঁর করোনা পজিটিভ প্রতিবেদনে এসেছে। এ নিয়ে জামালপুর জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হলো। আজ শুক্রবার জামালপুরের সিভিল সার্জন প্রণয় কান্তি দাস এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

ওই ব্যক্তির নাম মোজাম্মেল হক (৬৫)। তিনি এই উপজেলার কুলিয়া ইউপির সাবেক সদস্য ছিলেন। গত রোববার তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে এক আত্মীয়ের বাড়িতে মারা যান। স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাঁকে নিজ বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

মেলান্দহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো.ফজলুল হক জানান, ওই ব্যক্তি জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে রোববার ভোরে পাশের ইসলামপুর উপজেলার চর গোয়ালিনী ইউনিয়নের এক আত্মীয়ের বাড়িতে মারা যান। ওই বাড়ির লোকজন তাঁর মরদেহ তড়িঘড়ি করে মেলান্দহ উপজেলার কুলিয়া ইউনিয়নের কুলিয়া মধ্যপাড়ার নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেন। খবর পেয়ে ওই ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই তাঁর লাশ দাফন করা হয়। পরে নমুনা পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে পরীক্ষার ফলাফলে তাঁর করোনা পজিটিভ আসে।

জামালপুরের সিভিল সার্জন প্রণয় কান্তি দাস বলেন, করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন। এই জেলায় ৫ এপ্রিল প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে এই জেলায় পাঁচজনের মৃত্যু হলো। এর আগে ইসলামপুরে দুজন নারীর মৃত্যুর পর নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ হন। দেওয়ানগঞ্জ ও মেলান্দহ উপজেলায় দুজন পুরুষ ব্যক্তি ময়মনসিংহের কোভিড-১৯ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন