বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গ্রেপ্তার দুজন হলেন লিটন মিয়া (২৮) ও শাহাজান মণ্ডল (৩২)। তাঁরা দুজনেই বেনাপোল বন্দর থানার পুটখালী গ্রামের বাসিন্দা।

সোনা ভারতে পাচার হবে—এমন খবর পেয়ে বিজিবি পুটখালী তল্লাশিচৌকির (বিওপি) সদস্যরা পুটখালী মসজিদ বাড়ি এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু করেন।
default-image

বিজিবি জানায়, সোনা ভারতে পাচার হবে—এমন খবর পেয়ে বিজিবি পুটখালী তল্লাশিচৌকির (বিওপি) সদস্যরা পুটখালী মসজিদ বাড়ি এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু করেন। দুপুর ১২টার দিকে একটি মোটরসাইকেলে করে লিটন মিয়া ও শাহাজান মণ্ডল সেখান দিয়ে যাচ্ছিলেন। বিজিবি সদস্যরা তাঁদের থামিয়ে তল্লাশি চালান। এ সময় মোটরসাইকেলের ধোঁয়া নির্গমনের পাইপের ভেতরে স্কচটেপের ওপর কাপড় দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় ১২টি সোনার বার পাওয়া যায়, যার ওজন ১ কেজি ৪০২ গ্রাম। পরে এসব উদ্ধার করা হয়। এর বাজারমূল্য প্রায় ৯০ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এ সময় পাচারকারী লিটন ও শাহজাহানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে মোটরসাইকেলটি।

২১ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন খুলনার অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ মনজুর-ই-এলাহী বলেন, এ ব্যাপারে বেনাপোল বন্দর থানায় মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তার লিটন মিয়া ও শাহাজান মণ্ডলকে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। উদ্ধার করা সোনার বার ও জব্দ করা মোটরসাইকেল থানায় জমা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন