বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে সহযোগিতার বিষয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নিতে দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা ফ্রান্স সফর করছেন।

বৈঠকে দুই মন্ত্রী জেসিসি বৈঠকের আগে সংশ্লিষ্ট জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক শেষ করার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তিস্তার পানি বণ্টন সমস্যা সমাধানের গুরুত্বের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। এস জয়শঙ্কর এ বিষয়ে তাঁর দেশের সরকারের নীতিগত অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেছেন। তাঁরা কুশিয়ারা নদীসংক্রান্ত চলমান আলোচনা চালিয়ে যেতে সম্মত হয়েছেন।

আব্দুল মোমেন জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের সদস্য হিসেবে ভারতকে রোহিঙ্গা সংকটের সমাধানের বিষয়ে সম্পৃক্ত থাকার আহ্বান জানান।

উভয় মন্ত্রী মনে করেন, মুজিব শতবর্ষ উদ্‌যাপন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য ভারতের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সফরের মাধ্যমে ২০২১ সালে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক একটি উচ্চমাত্রায় পৌঁছেছে।

দুই মন্ত্রী ২০২১ সালের ৬ ডিসেম্বর মৈত্রী দিবস উদ্‌যাপনের জন্য বিশ্বের ১৮টি নগরীতে সফল অনুষ্ঠান করার কথাও স্মরণ করেন।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন।

পরে এক টুইট বার্তায় এস জয়শঙ্কর বলেন, ২০২২ সালে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ককে আরও উচ্চস্তরে নিয়ে যেতে নয়াদিল্লি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন