ময়মনসিংহ জেলায় গতকাল সোমবার এক দিনেই সুস্থ হয়েছেন ১৫৪ জন কোভিড-১৯ রোগী। এক দিনে সুস্থ হওয়ার ক্ষেত্র এটি সর্বোচ্চ। এর আগে ২৩ জুন ৮৭ জন সুস্থ হয়েছিলেন। এ নিয়ে এক সপ্তাহে সুস্থ হলেন ৪৬৯ জন। এটা জেলায় মোট সুস্থের ৫৪ শতাংশ।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রমতে, জেলায় মোট ১ হাজার ৮১৩ জন আক্রান্ত মানুষের বিপরীতে সুস্থ হয়েছেন ৮৬৪ জন। সুস্থতার হার এক দিনেই এক লাফে ৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে প্রায় ৪৮ শতাংশতে উন্নীত হয়েছে। এর মধ্যে গতকাল ময়মনসিংহ সদরে ৭৪ জন, ভালুকায় ২৬ জন, ধোবাউড়ায় ১৭ জন, মুক্তাগাছায় ১৪ জন, ত্রিশালে ১২ জন, নান্দাইলে ৭ জন, ফুলবাড়িয়া উপজেলায় ৪ জনসহ মোট ১৫৪ জন সুস্থ হয়েছেন।

অন্য যাঁরা আক্রান্ত, তাঁদেরও সুস্থ করে তোলার লক্ষ্যে সার্বক্ষণিক তদারকি করা হচ্ছে জানিয়ে সিভিল সার্জন এ বি এম মসিউল আলম বলেন, আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত ৯১৮ জন আইসোলেশনে রয়েছেন। তাঁরাও সুস্থ হয়ে যাবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

জেলায় করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তিদের মধ্যে সদর উপজেলায় সবচেয়ে বেশি। এই উপজেলায় ১ হাজার ৩৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন,যা মোট আক্রান্তের ৫৭ শতাংশ। আক্রান্ত ব্যক্তিদের অধিকাংশই সিটি করপোরেশন এলাকার বাসিন্দা। সদর বাদে জেলার অন্য ১২টি উপজেলা মিলিয়ে ৭৭৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

সুস্থ হওয়ার তালিকাতেও সবচেয়ে এগিয়ে সদর উপজেলা। এখানে ৪৫৫ জন সুস্থ হয়েছেন, যা জেলার মোট সুস্থ হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ৫২ শতাংশ। এর পরেই যথাক্রমে ভালুকায় ৮২ জন, ঈশ্বরগঞ্জে ৬০ জন, ধোবাউড়ায় ৪৬ জন, ত্রিশালে ৪২ জন, ফুলপুরে ৩৯ জন, গফরগাঁও উপজেলায় ৩৬ জন রয়েছেন। এ ছাড়া মুক্তাগাছায় ২৮ জন, নান্দাইলে ২৪ জন, ফুলবাড়িয়ায় ২৩ জন, তারাকান্দায় ১৪ জন, হালুয়াঘাটে ৮ জন এবং গৌরীপুরে ৭ জন সুস্থ হয়েছেন।

সুস্থ হওয়া প্রসঙ্গে সিভিল সার্জন এ বি এম মসিউল আলম বলেন, এখন যাঁরা আইসোলেশনে আছেন, তাঁরা অধিকাংশই নতুন সংক্রমিত। তাঁদের সুস্থ হতে কিছুটা সময় লাগবে। তিন দফা ফলোআপ টেস্টে নমুনা ‘নেগেটিভ’ এলে তাঁদের করোনামুক্ত ঘোষণা করা হবে। এ পর্যন্ত আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ১০ জনকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে এবং ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0