default-image

দেশে পর্যাপ্ত ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী (পিপিই) রয়েছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, ইতিমধ্যে তিন লাখ পিপিই বিতরণ করা হয়েছে। আরও এক লাখ হাতে মজুত আছে। দেশেই লাখ লাখ পিপিই তৈরি করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রও বাংলাদেশের কাছে পিপিই চেয়েছে।

আজ বুধবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বেসরকারি মেডিকেল কলেজ অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে পাঁচ হাজার ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রী (পিপিই) দেওয়া হয়। অনলাইনে এই অনুষ্ঠানটি সম্প্রচার করা হয়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালকেও শুধু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য ব্যবহার করা হবে। এ ছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের যাতায়াতের জন্য প্রতিটি জেলায় একটি করে অ্যাম্বুলেন্স দেওয়া হবে।

করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য আরও ১০টি ল্যাব স্থাপন করা হচ্ছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, অল্প দিনের মধ্যে সেগুলো চালু হবে। এ ছাড়া যোগাযোগের জন্য চালু করা হটলাইনে জেলা পর্যায়েও পাঁচটি করে নতুন লাইন সংযুক্ত করা হচ্ছে। এতে মোট লাইন হবে সাড়ে তিন শ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ছুটির ১০ দিনেও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় চালু থাকবে। কোনো রোগী যেন ফিরে না যায় সে জন্য হাসপাতালগুলোর প্রতি আহ্বান জানান তিনি। অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, আগামীকাল স্বাধীনতা দিবসে চীন ১০ হাজার পিপিই, ১০ হাজার কীট এবং এক হাজার থার্মোমিটার দিচ্ছে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মো. এনামুর রহমান প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0