default-image

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, হরতাল-অবরোধের কারণে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে রপ্তানি কম হয়েছে। এ জন্য দায়ী খালেদা জিয়ার দল। আজ মঙ্গলবার সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে মন্ত্রী এ কথা বলেন।
এ সম্পর্কে মামুনুর রশীদের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তোফায়েল আহমেদ বলেন, রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কম হলেও গতবারের চেয়ে বেশি। রানা প্লাজা ধসের পর দেশের পোশাকশিল্প কঠিন পরীক্ষায় পড়েছিল। সেই অবস্থা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হয়েছে। পোশাক আমদানিকারকেরা আস্থা ফিরে পেয়েছেন। হরতাল-অবরোধ-জঙ্গি তৎপরতা রপ্তানিকে বাধাগ্রস্ত করতে পারেনি।
মামুনুর রশীদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, হরতাল, অবরোধ ও সহিংসতার মধ্যেও তৈরি পোশাকের কাঁচামাল সরবরাহ, উৎপাদন ও রপ্তানি সচল আছে। বর্তমানে পোশাক কারখানায় কোনো অসন্তোষ নেই। চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে পোশাক রপ্তানিতে গত বছরের একই সময়ে তুলনায় প্রবৃদ্ধি দশমিক ৭৭ শতাংশ বেড়েছে।
মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী প্রশ্নের জবাবে তোফায়েল আহমেদ বলেন, সরকারি ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান এসেনশিয়াল ড্রাগস কোম্পানি ২০১৪ সালে ৬৫ লাখ ৮৯ হাজার টাকার ওষুধ রপ্তানি করেছে।

নূর জাহান বেগমের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ওষুধ রপ্তানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ যে বিশেষ সুবিধা পেয়ে থাকে, তার মেয়াদ চলতি বছরের ডিসেম্বরে শেষ হচ্ছে। সরকার এর মেয়াদ ২০২১ সাল পর্যন্ত করার চেষ্টা করছে।

সৌদি আরবে কর্মী যাবে ২০ হাজার টাকায়
নুরুল হকের প্রশ্নের জবাবে প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সৌদি আরবের শ্রমবাজার নতুন করে উন্মুক্ত হয়েছে। আশা করা যায় ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা ব্যয়ে সৌদি আরবে কর্মী পাঠানো সম্ভব হবে।
ফরহাদ হোসেনের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, অবৈধভাবে বসবাস করার জন্য মালয়েশিয়ায় ২ হাজার ১৩১, সৌদি আরবে ৪৬৭, আরব আমিরাতে ১ হাজার ৫১, কুয়েতে ৭৫, বাহরাইনে ১৩, ইরাকে ১২০, দক্ষিণ কোরিয়ায় ৫, তুরস্কে ১৪, লেবাননে ১০৪, জাপানে ১৩, মালদ্বীপে ৪০, ওমানে ৫০১, মিসরে ২০ ও বুলগেরিয়ায় ৬ জন বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ২০১৪ সালে ৩ লাখ ৫ হাজার ২৮৯ জন কর্মী মধ্যপ্রাচ্যে গিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন