default-image

নির্দিষ্ট গুটি কয়েক ঠিকাদারের মাধ্যমে রেলের কেনাকাটা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সংসদীয় কমিটির একাধিক সদস্য। রেলের টেন্ডার প্রক্রিয়ায় দুর্নীতি খতিয়ে দেখতে একটি উপকমিটি গঠন করেছে সংসদীয় কমিটি। আজ মঙ্গলবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ কমিটি গঠন করা হয়।

বৈঠক সূত্র জানায়, বৈঠকে একজন সদস্য বলেন দরপত্রের মাধ্যমে কেনাকাটা (এলটিএম) পদ্ধতিতে একটি চক্র সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করছে বলে তাঁদের কাছে তথ্য এসেছে। মোট ৩৮টি লাইসেন্সধারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এই কাজ করছে। নামে ৩৮টি প্রতিষ্ঠান হলেও প্রকৃতপক্ষে ৫ থেকে ৭ জনই এসব প্রতিষ্ঠানের মালিক। তাঁদের নিকটাত্মীয়দের নামে লাইসেন্স করা হয়েছে।

বৈঠকে সংসদীয় কমিটির আরেক সদস্য অভিযোগ করেন, আফসার বিশ্বাস নামের একজন ঠিকাদার এসব নিয়ন্ত্রণ করছেন। অনেকে তাঁকে রেলওয়ের জি কে শামীম নামে ডাকেন। এ ছাড়া রেলওয়ের স্ক্র্যাপ নিলামের ক্ষেত্রেও অনেক অনিয়ম হচ্ছে বলে অভিযোগ আছে।

বিজ্ঞাপন

সংসদ সচিবালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ক্রয় নীতিমালা ঠিকভাবে অনুসরণ করা হচ্ছে কি না ও টেন্ডার প্রক্রিয়ায় দুর্নীতি খতিয়ে দেখতে একটি উপকমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশ রেলওয়ের ক্রয় পদ্ধতি, রেলওয়ের ২টি জোনকে ৪টি জোনে রূপান্তর, চট্টগ্রামে রেলওয়ের জমিতে পেট্রল পাম্প ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার জন্য লিজ নেওয়ার বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়।

রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম, আসাদুজ্জামান নূর, শফিকুল ইসলাম, শফিকুল আজম খাঁন, সাইফুজ্জামান, গাজী মোহাম্মদ শাহ নওয়াজ ও বেগম নাদিরা ইয়াসমিন বৈঠকে অংশ নেন।

মন্তব্য পড়ুন 0