বিজ্ঞাপন

বিবৃতিতে বলা হয়, সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে দীর্ঘ পাঁচ ঘণ্টা ধরে রোজিনাকে নির্যাতন, হয়রানি ও হেনস্তার পর পুলিশে হস্তান্তর করা হয়। গভীর রাতে তাঁকে অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে গ্রেফতার দেখানো হয়। এ ঘটনা চরম উদ্বেগজনক। এ ঘটনা মুক্ত সাংবাদিকতার ওপর সরাসরি আঘাত।

বিবৃতিতে বলা হয়, এ ঘটনা শুধু ব্যক্তি রোজিনার ওপরই হামলা নয়, বরং স্বাধীন ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার ওপর হামলা। রোজিনার ওপর নির্যাতন, মামলা, গ্রেপ্তার মানবাধিকারেরও চরম লঙ্ঘন।

আরডিজেএ অবিলম্বে সাংবাদিক রোজিনার নিঃশর্ত মুক্তি, তাঁর বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহার ও তাঁকে নির্যাতন-হয়রানির সঙ্গে জড়িত সবার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে।

রোজিনা বর্তমানে গাজীপুরের কাশিমপুরের মহিলা কারাগারে আছেন। আগামীকাল বৃহস্পতিবার তাঁর জামিন আবেদনের ওপর অধিকতর শুনানির দিন ধার্য রয়েছে। এ ঘটনায় দেশজুড়ে বিভিন্ন মহলে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠন এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। অবিলম্বে তাঁকে মুক্তি দেওয়ার দাবি উঠেছে দেশে-বিদেশে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন