র্যা ব সদর দপ্তরের ব্যারাকে ঢুকে শুক্রবার আত্মঘাতী হওয়া ব্যক্তির পরিচয় গতকাল পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। তবে ওই আত্মঘাতী ব্যক্তির স্বজনদের খোঁজে দেশের বিভিন্ন জায়গায় তৎপরতা চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এ ছাড়া শনিবার খিলগাঁওয়ে তল্লাশিচৌকিতে র্যা বের গুলিতে নিহত যুবকের পরিচয়ও পাওয়া যায়নি। খিলগাঁওয়ের ঘটনায় নিহত ব্যক্তি ছাড়াও অজ্ঞাতপরিচয় দুজনকে আসামি করে মামলা করেছে র্যা ব।
র্যা ব-৩-এর উপসহকারী পরিচালক কাজী হাসানুজ্জামান বাদী হয়ে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে শনিবার রাতে খিলগাঁও থানায় মামলাটি করেন। ওই মামলায় বলা হয়, বেপরোয়া গতির দুটো মোটরসাইকেলকে আসতে দেখে থামানোর চেষ্টা করলে চালক র্যা ব সদস্যদের বাহনটি দিয়ে ধাক্কা মারেন। আত্মরক্ষায় র্যা বের সদস্যরা গুলি চালালে তিনি নিহত হন। র্যা বের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বলেন, গতকাল পর্যন্ত আশকোনার আত্মঘাতী হামলাকারী বা খিলগাঁওয়ে নিহত যুবকের পরিচয় পাওয়া যায়নি।
তবে ফরিদপুর অফিস জানিয়েছে, ফরিদপুরের ভাঙ্গার মানিকদহ ইউনিয়নের আদমপুর গ্রাম থেকে জুয়েল রানা (৩২) নামের এক ব্যক্তির বাবা-মাসহ সাতজন আত্মীয়কে শুক্রবার রাতে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আদমপুর গ্রামের কেউ কেউ ধারণা করছেন, জুয়েল রানাকে আশকোনায় জঙ্গি হামলাকারী সন্দেহ করে শনাক্তের জন্য তাঁর পরিবারের সদস্যদের ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
পিরোজপুর প্রতিনিধি জানান, পিরোজপুরেও আটক হওয়া একটি পরিবারকে কেন্দ্র করে আত্মঘাতী হামলাকারীর গুজব ছড়ায়। তবে গতকাল বিকেলে আটক তিন ব্যক্তি নূরুল ইসলাম হাওলাদার, তাঁর ছেলে শহিদুল ও রফিকুলকে জিজ্ঞাসাবাদের পর ছেড়ে দিয়েছে র্যা ব।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন