লক্ষ্মীপুরে মারা যাওয়া শিশু করোনায় আক্রান্ত ছিল না

বিজ্ঞাপন
default-image

লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলায় মারা যাওয়া শিশুর (২) নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়নি। বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট(আইইডিসিআর) থেকে প্রতিবেদন জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে এসেছে। এরপর ওই এলাকার একটি বাড়ির তিনটি পরিবারের ওপর থেকে লকডাউন প্রত্যাহার করে নেয় প্রশাসন।

উপজেলার তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের তোরাবগঞ্জ গ্রামের ওই শিশু কাশি, খিঁচুনি ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত ছিল। শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে শিশুটি মারা যায়। পরে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়।

ঘটনার পর দিন ওই উপজেলার চর মার্টিন ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের আরেক শিশু (৪) জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মারা যায়। গত সোমবার আইইডিসিআর থেকে পাঠানো প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওই শিশুটিও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিল না।

স্বাস্থ্য বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, খিঁচুনি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে শিশুটি মারা যাওয়ায় এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছিল। অনেকে সন্দেহ করছিলেন, সে হয়তো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। কারণ, উপসর্গগুলো করোনার মতো ছিল। এখন পরীক্ষার ফল ‘নেগেটিভ’ আসায় এলাকায় স্বস্তি ফিরবে।

কমলনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু তাহের প্রথম আলোকে বলেন, শিশুটি মৃত্যুর সময় কাশি ও খিঁচুনি ছিল। তাই সতর্কতার অংশ হিসেবে নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানো হয়েছিল। আইইডিসিআর থেকে পরীক্ষার ফল পাঠানো হয়েছে। ফল ‘নেগেটিভ’ এসেছে। অর্থাৎ শিশুটি করোনায় আক্রান্ত ছিল না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন