নাটোরের ব্যবসায়ীরা গতকাল বৃহস্পতিবার লাঠি-বাঁশি নিয়ে সন্ত্রাসবিরোধী মিছিল-সমাবেশ করেছেন। সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের প্রতিরোধ করতে ব্যবসায়ীরা এ পথ বেছে নিয়েছেন।
সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ প্রতিরোধ সংগ্রাম পরিষদ তথা লাঠি-বাঁশি সমিতি সূত্র জানায়, দুপুর ১২টায় শহরের স্টেশনবাজার (তেবাড়িয়া রোড) এলাকায় ব্যবসায়ীরা একযোগে বাঁশি বাজিয়ে ও লাঠি হাতে রাস্তায় নেমে আসেন। পরে তাঁরা একত্র হয়ে স্টেশনবাজার থেকে তেবাড়িয়া সড়কে লাঠিমিছিল করেন। মিছিল শেষে রেলগেট মোড়ে ব্যবসায়ীরা সমবেত হয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন।
এ সময় বক্তব্য দেন লাঠি-বাঁশি সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবদুস সালাম, সংগঠনের বর্তমান সভাপতি আবদুল মাজেদ, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন ও প্রচার সম্পাদক আরিফুল ইসলাম।
আরিফুল ইসলাম বলেন, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজি অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যাওয়ায় তা প্রতিরোধের জন্য ১৯৯৯ সালে স্টেশনবাজার থেকেই লাঠি-বাঁশি সমিতির জন্ম হয়েছিল। এ সমিতির প্রতিরোধের মুখে নাটোর থেকে সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজেরা গা ঢাকা দেয়। অনেকের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড হয়। কিন্তু পরে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপে সংগঠনের কার্যক্রম স্থগিত হয়ে যায়। ফলে শহরে আবারও সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজি শুরু হয়। বর্তমানে তা বেড়েই চলেছে। এ কারণে ব্যবসায়ীরা আবারও সংগঠনের কার্যক্রম শুরু করেছেন। এখন থেকে সন্ত্রাসীরা ব্যবসায়ীদের কাছে কোনো ধরনের বেআইনি আবদার করলে তাঁরা মুখে বাঁশি বাজিয়ে ও লাঠি হাতে ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের প্রতিরোধ করবেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন