default-image

নড়াইলের লোহাগড়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় এক চিকিৎসকসহ আরও আট ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাঁচজন চিকিৎসকসহ ১৯ স্বাস্থ্যকর্মীর করোনা শনাক্ত হলো। আর উপজেলায় মোট করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ২২৫।

আজ রোববার উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এ তথ্য জানিয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক দীবেন্দু কুমার দাসের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর আগে এই হাসপাতালের আরও চারজন চিকিৎসক, তিনজন নার্সসহ মোট ১৯ স্বাস্থ্যকর্মীর করোনা শনাক্ত হয়।

পেশাজীবীদের মধ্যে লোহাগড়ায় স্বাস্থ্য বিভাগে সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে। এরপরে রয়েছেন ব্যাংককর্মী। উপজেলার সোনালী ব্যাংক লক্ষ্মীপাশা শাখার (ট্রেজারি শাখা) ১২ জন, অগ্রণী ব্যাংক লোহাগড়া বাজার শাখার দুজন ও ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের এক কর্মকর্তা কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। লোহাগড়া থানার পাঁচ পুলিশ সদস্যও করোনায় সংক্রমিত। এর মধ্যে দুজন এসআই, একজন এএসআই ও দুজন কনস্টেবল রয়েছেন। এ ছাড়া উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা গোলাম কিবরিয়ার করোনা শনাক্ত হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা (সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ দায়িত্বপ্রাপ্ত) রিপন কুমার ঘোষ বলেন, ‘চারজন চিকিৎসকসহ আট স্বাস্থ্যকর্মী ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন। অন্যরা আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। অসুস্থ ব্যক্তিরা চিকিৎসা নিতে এসে তথ্য গোপন করায় চিকিৎসকেরা বেশি আক্রান্ত হয়েছেন। আর ব্যাংকার ও পুলিশ সদস্যদের লোকজনের মধ্যে থেকে কাজ করতে হচ্ছে বলে তাঁরা বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন। জেলার মধ্যে লোহাগড়ায় কোভিড রোগীর সংখ্যা বেশি।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন