কুমিল্লার কোটবাড়ীতে অবস্থিত গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. তাজুল ইসলামকে গত বৃহস্পতিবার কুমিল্লা জিলা স্কুলে বদলি করে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। দুই দিন সাপ্তাহিক ছুটির পর গতকাল রোববার তাঁকে শরীয়তপুর পালং তুলাসার গুরুদাস সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ে বদলি করা হয়েছে।

এ অবস্থায় কুমিল্লা জিলা স্কুল ও গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুলে বর্তমানে কোনো প্রধান শিক্ষক নেই।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ২৮ মে থেকে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির নির্বাচনী এলাকা চাঁদপুর মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য। প্রধান শিক্ষক না থাকায় ওই স্কুলে শিক্ষার কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছিল। গত সপ্তাহে শিক্ষামন্ত্রী চাঁদপুর এলে প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা বিষয়টি তাঁকে জানান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার মাউশি এক প্রজ্ঞাপন জারি করে। এতে কুমিল্লা জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদা আক্তারকে চাঁদপুর মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে বদলি করা হয়। একই প্রজ্ঞাপনে কুমিল্লা জিলা স্কুলে পদায়ন করা হয় কুমিল্লা গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. তাজুল ইসলামকে। আগামী বুধবারের মধ্যে তাঁকে যোগদানের জন্য বলা হয়, কিন্তু হঠাৎ করেই দুই দিন সাপ্তাহিক ছুটির পর ওই আদেশ সংশোধন করে গতকাল রোববার তাজুল ইসলামকে শরীয়তপুর পালং তুলাসার গুরুদাস সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ে বদলি করা হয়। এ ঘটনায় বিস্মিত কুমিল্লার সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা।

জানতে চাইলে মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমি বলির পাঁঠা হলাম। আমি বদলির জন্য কোনো ধরনের চেষ্টা করিনি। এরপরও আমার এই ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।’

মাউশির সহকারী পরিচালক (মাধ্যমিক-১) মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আদেশ করেছেন প্রজ্ঞাপন জারির। সেই মোতাবেক কাজ করেছি। তাঁরা সার্বিক বিষয়টি বলতে পারবেন। ১২ মার্চের প্রজ্ঞাপনটি সংশোধন করে পুনরায় প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।’

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন