অনলাইনের মাধ্যমে  রংপুরে সুধী সংযোগে যুক্ত অতিথিদের একাংশ
অনলাইনের মাধ্যমে রংপুরে সুধী সংযোগে যুক্ত অতিথিদের একাংশ

শিক্ষকদের ভাবনা-চিন্তা, সৃজনশীলতা শিক্ষার্থী তথা দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ নির্মাণের মূল হাতিয়ার। তাঁরা নিঃস্বার্থ কারিগর। আইপিডিসি ও প্রথম আলো শিক্ষকদের সম্মাননার এই উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। এ কার্যক্রম যেন অব্যাহত থাকে।

আইপিডিসি-প্রথম আলো প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা উপলক্ষে মঙ্গলবার বিকেলে রংপুর অঞ্চলে আয়োজিত অনলাইন সুধী সংযোগে বক্তারা এসব কথা বলেন। দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে এ ভার্চুয়াল সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে রংপুর অঞ্চলের পাঁচ জেলা গাইবান্ধা, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, লালমনিরহাট ও রংপুর জেলার শিক্ষক, সাংস্কৃতিক সংগঠক, সাহিত্যিক, সমাজকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবীসহ নানা পেশার মানুষ যোগ দেন।

বিজ্ঞাপন

বেলা সাড়ে তিনটায় সুধী সংযোগটি শুরু হয়। প্রথম আলোর রংপুরের নিজস্ব প্রতিবেদক আরিফুল হকের সঞ্চালনায় শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন প্রথম আলোর যুব কার্যক্রম ও ইভেন্টস বিভাগের প্রধান মুনির হাসান। তিনি বলেন, ‘শিক্ষকেরা শৈশবে আমাদের পথ দেখিয়েছেন, আলোর বর্তিকা দিয়েছেন, তাদের সম্মানিত করতেই এই আয়োজন।’

এরপর শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন আইপিডিসি ফাইনান্স লিমিটেডের অ্যাকটিং হেড অফ ডিস্ট্রিবিউশনের রাহাত জামিল। তিনি বলেন, ‘সবার একটা সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আমাদের প্রিয় শিক্ষকদের নমিনেশন দিয়ে যেন সবার প্রিয় শিক্ষক হিসেবে উপস্থাপন করতে পারি। যে শিক্ষকেরা নির্বাচিত হবেন তাঁরা সব শিক্ষকদের প্রতিনিধিত্ব করছেন।’

default-image

অনুষ্ঠানে গাইবান্ধার প্রবীণ শিক্ষক আহমেদ উদ্দিন শাহ শিশু নিকেতন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মাজহারুল মান্নান নিজের শিক্ষাজীবনের কথা তুলে ধরে বলেন, ‘কারমাইকেল কলেজে অনার্স মাস্টার্স শিক্ষার্থীদের যেমন পড়িয়েছি। তেমনি শেষ জীবনে এসে প্লে, নার্সারি, ক্লাস ওয়ান-টু বাচ্চাদেরও পড়িয়েছি। শিক্ষাজীবনে সততার সঙ্গে কাজ করেছি। এটি আমার বড় শান্তি।’

কুড়িগ্রামের প্রবীণ শিক্ষক সুব্রত ভট্টাচার্য তাঁর এক শিক্ষকের কথা স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘কলেজের শিক্ষক আবুল হাসান খন্দকার স্যার আমাকে মা মাটিকে ভালোবাসতে শিখিয়েছেন। আমি তাঁর কাছে চির ঋণী।’

রংপুরের সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজের বাংলা বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান মোহাম্মদ শাহ আলম বলেন, ‘যে শিক্ষকেরা আমাকে আলোকিত করেছেন, তাঁদের দেখানো পথেই আমি এখনো পথ চলছি।’

অনুষ্ঠানে আরও যুক্ত ছিলেন, ২০১৯ সালে প্রিয় শিক্ষক সম্মাননাপ্রাপ্ত নূরুল আলম, আইপিডিসি ফাইনান্স লিমিডেটের বগুড়া অঞ্চলের ব্যবস্থাপক মাহমুদার রহমান, লালমনিরহাট সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সুজন শাহ-ই ফজলুল, রংপুরের কাউনিয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যাপক শাশ্বত ভট্টাচার্য, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক তুহিন ওয়াদুদ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মোহাম্মদ শাহ আলম, ইন্টারন্যাশনাল গ্রামার স্কুলের চেয়ারম্যান সেরাফুল হোসেন, রংপুরের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মকসুদার রহমান, সাহিত্যিক ও লেখক নাসিমা আক্তার, গাইবান্ধার সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব চুনী ইসলাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে একাধিক ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এ ছাড়া প্রিয় শিক্ষক সম্মাননার মনোনয়ন জমা দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়। অনলাইনে নির্দিষ্ট ফরমে আবেদন করা যাবে (www.priyoshikkhok.com) ওয়েব ঠিকানায়। রংপুর বন্ধুসভার সদস্যরা এ অনুষ্ঠান আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0