default-image

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলায় যমুনা নদীতে আজ শুক্রবার সকালে কোরবানির গরুবাহী ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এক গরু ব্যবসায়ী ও ৩৬টি গরুসহ ট্রলারটির খোঁজ পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ ওই গরু ব্যবসায়ীর নাম রজব আলী (৬৫)। তিনি পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার বনগ্রাম এলাকার বাসিন্দা।

ফায়ার সার্ভিস, গরুর মালিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার শিবালয়ের আরিচায় গরুর বিশাল হাট বসে। সকালে পাবনার নগরবাড়ী ঘাট থেকে ইঞ্জিনচালিত একটি ট্রলারে ৪০টি গরু নিয়ে আরিচা হাটের উদ্দেশে রওনা দেন গরু ব্যবসায়ীরা। ট্রলারে গরুর মালিক, ট্রলারের শ্রমিকসহ ২৮ জন আরোহী ছিলেন। পথে সকাল নয়টার দিকে যমুনা নদীতে প্রবল স্রোত ও প্রচণ্ড ঢেউয়ের কারণে আরিচা ঘাটের অদূরে ট্রলারটি ডুবে যায়। খবর পেয়ে সকাল সাড়ে নয়টার দিকে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল সেখানে পৌঁছায়। এর আগে স্থানীয় লোকজন ডুবে যাওয়া ব্যক্তিদের উদ্ধারে ট্রলার নিয়ে ঘটনাস্থলে যান।

ট্রলারডুবিতে উদ্ধার হওয়া সাঁথিয়া উপজেলার মানপুর গ্রামের গরু ব্যবসায়ী রহম আলী সাংবাদিকদের বলেন, ট্রলারে ৪০টি গরু ও ২৮ জন আরোহী ছিলেন। স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় মাত্র চারটি গরু উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া গরুর মালিক রজ্জব আলী নিখোঁজ রয়েছেন। তাঁর বাড়ি সাঁথিয়া উপজেলার বনগ্রামে। গরুর মালিকদের সবার বাড়ি পাবনার বিভিন্ন এলাকায়।

আরিচা স্থল কাম পাটুরিয়া নৌবন্দর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মজিবর রহমান বলেন, নদীতে প্রচণ্ড স্রোতের কারণে উদ্ধার অভিযান চালাতে মারাত্মক সমস্যা হয়। দুপুর পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান চালালেও ট্রলার ও গরুর সন্ধান পাওয়া যায়নি। গরু ব্যবসায়ীর নিখোঁজের বিষয়ে তিনি কোনো তথ্য দিতে পারেননি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0