জাতীয় শিশু নীতিতে শিশুদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ব্যবহার না করার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু এই নীতি উপেক্ষা করে সরকারি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ শিশু একাডেমী পঞ্চগড় কার্যালয় সন্ত্রাস ও বোমা মেরে শিশু হত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধনে শিশুদের উপস্থিত করেছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে পঞ্চগড় শহরের চৌরঙ্গী মোড়ে এ মানববন্ধন হয়। এতে শিশু একাডেমী পঞ্চগড় কার্যালয়ের প্রাক্-প্রাথমিক শ্রেণির তিন-পাঁচ বছর বয়সী শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছে। অথচ শিশুরা এ কর্মসূচির ব্যাপারে কিছুই জানে না। তাদের সঙ্গে কথা বলে এ কথা জানা গেছে।
মানববন্ধনে শিশুদের সামনে রেখে অভিভাবকেরা পেছনে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ নিয়ে স্থানীয় অভিভাবকদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। তাঁরা বলছেন, শিশুদের ঢাল বা বর্ম হিসেবে ব্যবহার হরা হচ্ছে। এটি ঠিক নয়।
অভিভাবকেরা জানান, গতকাল সকালে শিশু একাডেমীর ক্লাসে এলে তাঁদের মানববন্ধনের কথা জানানো হয়। শিশুদের খেলার কথা বলে মানববন্ধনে নিয়ে আসা হয়। কারণ, তারা মানববন্ধন বিষয়ে কিছু বোঝে না।
মানববন্ধনে অংশ নেওয়া জিয়াউল হক নামের এক অভিভাবক জানান, রাজনৈতিকভাবে শিশুদের ব্যবহার করা হচ্ছে। এটি দেশ ও জাতির জন্য মারাত্মক উদ্বেগের ব্যাপার। সূচনা আকতার নামে অপর এক অভিভাবক বলেন, ‘আমাদের শিশু একাডেমীর পক্ষ থেকে নিয়ে আসা হয়েছে। সকালে ক্লাসে এলে মানববন্ধনের কথা জানানো হয়।’
মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘জাতীয় শিশু নীতি, ২০১১-এর শিশুর সুরক্ষাবিষয়ক অংশে উল্লেখ করা হয়েছে, শিশুদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ব্যবহার, প্রলোভন বা জোরপূর্বক জড়িত করা যাবে না।’
থিয়েটার স্কুল কারিগরের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সরকার হায়দার বলেন, ‘জাতির জন্য এটি দুর্ভাগ্যজনক। মানববন্ধনে নিয়ে গিয়ে শিশুদের আমরা বোমা, হত্যাসহ নানা শব্দের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি।’
পঞ্চগড় মহিলা কলেজের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক ও অভিভাবক আলী ছায়েদ বলেন, এ ধরনের কার্যক্রম অবিলম্বে বন্ধ হওয়া উচিত।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন শিশুবিশেষজ্ঞ জানান, এ ধরনের কর্মকাণ্ড কোমলমতি শিশুদের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। শিশুদের রাজনৈতিক কোনো কর্মসূচিতে নিয়ে যাওয়া উচিত নয়।
জেলা শিশু কর্মকর্তা আক্তারুজ্জামান বলেন, সরকারি নির্দেশে জেলা প্রশাসকের অনুমতি নিয়ে এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। দেশের এ পরিস্থিতে তারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে মানববন্ধনে অংশ নিয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন