নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে ট্রলারডুবির ঘটনায় নিখোঁজ দুই শিশুর মধ্যে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের তিন দিন পর আজ মঙ্গলবার শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল।

আজ ভোরে শহরের সৈয়দপুর এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে লাশ ভাসমান অবস্থায় শিশু ফাহিমের লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে নিখোঁজ অপর শিশু সুমাইয়ার লাশ উদ্ধার করা যায়নি।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপপরিচালক মো. মোমতাজ উদ্দিনের ভাষ্য, ট্রলারডুবির ঘটনার পর থেকে তাঁর নেতৃত্বে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল নিখোঁজ দুই শিশুর খোঁজে তল্লাশি অভিযান শুরু করে। নিখোঁজের তিন দিন পর শহরের সৈয়দপুর এলাকায় স্পিডবোটে করে তল্লাশি চালানোর সময় শীতলক্ষ্যা নদীতে কচুরিপানার মতো ভাসতে থাকা অবস্থায় শিশু ফাহিমের লাশ উদ্ধার করা হয়।

ফাহিম কুমিল্লার মেঘনা থানার বড় কান্দা গ্রামের মো. দুলাল মিয়ার ছেলে। তবে একই এলাকার তারেক মিয়ার নিখোঁজ মেয়ে সুমাইয়ার লাশ উদ্ধার করা যায়নি।

গত শনিবার সকালে নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জ কয়লাঘাট এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে মালবাহী ট্রলারের ধাক্কায় ৪০-৫০ জন যাত্রী নিয়ে ট্রলারডুবির ঘটনায় দুই শিশু নিখোঁজ হয়।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন