নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে মালবাহী ট্রলারের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবে দুই শিশু নিখোঁজ রয়েছে। আহত হয়েছেন ট্রলারের ১০ যাত্রী। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে মদনগঞ্জ কয়লাঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
এদিকে জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, ট্রলারডুবিতে আহত তিন ব্যক্তিকে ৩০ হাজার টাকা প্রদান এবং তাঁদের খাবারের জন্য পাঁচ হাজার টাকা এবং গন্তব্যে যাওয়ার জন্য বিকল্প ট্রলারের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, গতকাল সকাল সাড়ে সাতটার দিকে ৪০-৫০ জন যাত্রী নিয়ে সোনারগাঁয়ের মেঘনাঘাট যাওয়ার পথে বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জ কয়লাঘাট এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে একটি খালি ড্রামভর্তি ‘আল্লাহ্র দান’ নামের একটি বড় ট্রলার ধাক্কা দিলে যাত্রীবাহী ট্রলারটি ডুবে যায়। এ সময় ট্রলারে থাকা যাত্রীরা অনেকে সাঁতরে তীরে ও পাশের একটি লঞ্চের পাশে বাঁধা টায়ার ধরে রক্ষা পেলেও দুই শিশু নিখোঁজ হয়। এ সময় আহত হয় ট্রলারের কমপক্ষে ১০ যাত্রী। নিখোঁজ দুই শিশু হলো কুমিল্লা জেলার মেঘনা থানার বড়কান্দা গ্রামের দুলাল মিয়ার সাড়ে তিন বছরের ছেলে ফাহিম এবং ওই এলাকার তারেকের আট বছরের মেয়ে সুমাইয়া। ট্রলারডুবির খবর পেয়ে নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধারকাজ শুরু করে। বেলা দুইটার দিকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ডুবে যাওয়া ট্রলারটি উদ্ধার করে।
ট্রলারচালক বাচ্চু মিয়া জানান, বন্দর নবীগঞ্জ খেয়াঘাট থেকে যাত্রী নিয়ে কুমিল্লার মেঘনাঘাট যাওয়ার পথে মালবাহী একটি ট্রলার ট্রলারটিকে ধাক্কা দিলে ডুবে যায়।
নারায়ণগঞ্জ নদীবন্দরের নৌ-পুলিশ ফাঁঁড়ির ইনচার্জ মো. নজরুল ইসলাম জানান, ৪০-৫০ জন যাত্রী নিয়ে ট্রলারটি ডুবলেও নিখোঁজ রয়েছে দুই শিশু। উদ্ধারকাজ চলছে।
এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক মো. আনিছুর রহমান মিঞা ও পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন