default-image

শীতলক্ষ্যা নদীতে কার্গো জাহাজের ধাক্কায় যাত্রীবাহী লঞ্চডুবির ঘটনায় চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিটিএ)। কমিটিকে পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক আজ সোমবার দুপুরের দিকে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

লঞ্চডুবির ঘটনায় কারণ উদ্‌ঘাটন ও দায়ী ব্যক্তিদের শনাক্ত করতে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক বলেন, সংস্থার নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের পরিচালক রফিকুল ইসলামকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। আজ থেকে শুরু করে পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গোলাম সাদেক জানান, লঞ্চডুবির ঘটনায় গতকাল রোববার পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ দুপুর নাগাদ আরও ২১ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো চার থেকে পাঁচজন নিখোঁজ থাকতে পারে বলে তিনি ধারণা করছেন।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান বলেছেন, আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্ধার অভিযান শেষ হওয়ার পর যদি কোনো মরদেহ ভেসে ওঠে, তাহলে তা বিআইডব্লিউটিএকে জানানোর জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে অনুরোধ করা হয়েছে।

যাত্রীবাহী লঞ্চটি নারায়ণগঞ্জ থেকে মুন্সিগঞ্জ যাচ্ছিল। গতকাল রোববার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে লঞ্চটি মদনগঞ্জ এলাকায় নির্মাণাধীন তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুর কাছাকাছি এসকে-৩ নামের একটি কার্গো জাহাজের ধাক্কায় ডুবে যায়। এতে বেলা সোয়া ২টা পর্যন্ত ২৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন