বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বৈঠকে নসরুল হামিদ বলেন, আঞ্চলিক সহযোগিতার মাধ্যমে নবায়নযোগ্য জ্বালানির উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রূপকল্প ২০৪০ সালের মধ্যে ৫০ শতাংশ নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও ক্লিন এনার্জি থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যে বিদ্যুৎ বিভাগ কাজ করছে। নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রতিবেশী দেশ নেপাল ও ভুটানের সহযোগিতা বড় ভূমিকা রাখবে।

পাম্পা ভুসালের নেতৃত্বে নেপালের ৯ সদস্যের প্রতিনিধি দল এবং নসরুল হামিদের নেতৃত্বে বাংলাদেশের ৭ সদস্যের প্রতিনিধি দল বৈঠকে অংশ নেয়। এ সময় তারা দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। নেপালের জলবিদ্যুতের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে বাংলাদেশকে সেখানে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন নেপালের মন্ত্রী। এ সময় তিনি বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে বর্তমান সরকারের নেওয়া পদক্ষেপের প্রশংসা করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানি করছে। নেপাল থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত। ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির জন্য সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মো. হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন। নেপালের প্রতিনিধি দলের মধ্যে ছিলেন জাতীয় পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য সুরেন্দ্র লাব কারনা, নেপালের জ্বালানি, পানি সম্পদ ও সেচ মন্ত্রণালয়ের সচিব দেবেন্দ্র কারকি প্রমুখ।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন