default-image

শেরপুরে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীসহ আরও ১১ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা হলো ১৫৩। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে পাঠানো প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে আজ শুক্রবার সকালে জেলার সিভিল সার্জন কার্যালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

জেলা ও উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, নতুন আক্রান্ত লোকজনের মধ্যে নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন চিকিৎসক, শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালের একজন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট, শেরপুর সরকারি কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের একজন শিক্ষার্থী ও নকলা উপজেলায় এর আগে করোনায় আক্রান্ত এক ব্যক্তির মেয়ে রয়েছেন। আক্রান্ত সবাই নিজেদের বাসায় আইসোলেশনে (বিচ্ছিন্ন) রয়েছেন। নতুন সংক্রমিত ১১ জনের মধ্যে শেরপুর সদরে ৫, নালিতাবাড়ীতে ৩, নকলায় ২ ও শ্রীবরদী উপজেলায় ১ জন রয়েছেন।

জেলা সিভিল সার্জন এ কে এম আনওয়ারুর রউফ বলেন, গত ৫ এপ্রিল জেলায় প্রথম দুই নারীর করোনা শনাক্তের পর দুই মাসের বেশি সময়ে এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৩ জনে। তাঁদের মধ্যে শেরপুর সদরে ৬৮, নকলায় ৩১, নালিতাবাড়ীতে ২৩, ঝিনাইগাতীতে ১৮ ও শ্রীবরদী উপজেলায় ১৩ জন রয়েছেন। এঁদের মধ্যে ৭৬ জন সুস্থ হয়েছেন। আর দুজনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে আটজন চিকিৎসকসহ ৩৭ জন স্বাস্থ্যকর্মী ও ২৪ জন পুলিশ সদস্য রয়েছেন। তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় সামাজিক সংস্পর্শের কারণেই এখন সাধারণ মানুষ করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হচ্ছেন। তাই এর বিস্তার রোধে সবাইকে সচেতন হওয়ার ও মাস্ক ব্যবহারসহ সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার জন্য অনুরোধ জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0